সুরক্ষিত আইওটি সেবা নিশ্চিত করতে সিএসএ যোগ দিল অপো

শিগগিরই বৈশ্বিক পেশাজীবীদের আন্তর্জাতিক সংগঠন কানেক্টিভিটি স্ট্যান্ডার্ডস অ্যালায়েন্স (সিএসএ) এর পরিচালনা পর্ষদে যোগ দিচ্ছে বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় স্মার্ট ডিভাইস ব্র্যান্ড অপো। সিএসএ এর কোর সদস্য হিসেবে অপো ইন্টারনেট অব থিংকস (আইওটি), ম্যাটার এবং চীনে প্রমোশন অব প্রটোকলের মূল দায়িত্ব পালন করবে।

এ ব্যাপারে অপোর স্ট্যান্ডার্ড রিসার্চ ডিপার্টমেন্টের পরিচালক নিল ইয়াং বলেন, সিএসএ এর পরিচালনা পর্ষদে যোগ দিতে পেরে আমরা আনন্দিত ও সম্মানিত। ম্যাটার এর উন্নয়ন ও আইওটি পণ্যগুলোর জন্য উন্নত ব্যবহারকারীর অভিজ্ঞতা তৈরি করতে কাজ করে যাবো। ম্যাটার এর প্রচারণা ও আইওটি এর কাজে চীনের সীমানা পেরিয়ে ৫০টির বেশি দেশে আমরা আমাদের অভিজ্ঞদের কাজে লাগাবে। সিএসএ এবং এর সদস্যদের দেশসমূহের সাথে একত্রে আমরা আইওটি এর ভবিষ্যৎ বিনির্মাণে কাজ করবো।

সিএসএ -এর প্রেসিডেন্ট এবং সিইও টবিন রিচার্ডসন বলেন, ‘পরিচালনা পর্ষদে অপোর যোগদানের মাধ্যমে দুই পক্ষ মিলে আমরা একটি স্বার্থক প্রযুক্তিনির্ভর বিশ্ব গড়ে তুলতে পারবো বলে আশা করি। কানেক্টিভিটি স্ট্যান্ডার্ডস অ্যালায়েন্স ২০০২ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। আগে এটি জিগবি অ্যালায়েন্স নামে পরিচিত ছিল।

অপো মনে করে প্রযুক্তি হওয়া উচিত মানব কল্যাণের জন্য। পাশাপাশি একজন ব্যবহারকারীর কাজে লাগে এমন প্রযুক্তি সবার জন্য আনা উচিত। ৫জি প্রযুক্তির বিকাশের সাথে সাথে অপো আইওটি ইকোসিস্টেম উন্নয়নে বিনিয়োগ করে যাচ্ছে। সবাইকে আইওটি অভিজ্ঞতা ও টেকসই আইওটি ইকোসিস্টেম গড়ে তুলতে সিএসএ এবং গ্লোবাল আইওটি কমিউনিটি এর সাথে সম্পর্ক জোরদার করবে অপো।

১। ত্রিপুরা পুলিশের পক্ষ থেকে গত ২৬ অক্টোবর তারিখে ত্রিপুরা জেলার পানিসাগর মহকুমায় কোন মসজিদে অগ্নিকাণ্ড সংঘটিত হয়নি মর্মে জানানো হয়েছে। কিছু কিছু পত্রিকাও মসজিদে হামলার বিষয়টিকে গুজব বলে প্রচার করেছে।

২। কিন্তু, প্রকৃতপক্ষে ঐ দিন রোয়া বাজার চামটিলা মসজিদে বিশ্ব হিন্দু পরিষদের মিছিল শেষে হামলা হয়েছে এবং মসজিদের ক্ষতিসাধন করা হয়েছে । এছাড়া রোয়া বাজারে মুসলমানদের মুদি দোকান, রেশন দোকান এবং একটি গোডাউনে অগ্নিসংযোগ হয়েছে।

Nagad

৩। এখন পর্যন্ত প্রাপ্ত তথ্য মতে, ১৮টির উপর অপ্রীতিকর ঘটনা ত্রিপুরার ৫ জেলায় সংগঠিত হয়েছে। এর মধ্যে মসজিদে অগ্নিকাণ্ড-৩টি, মসজিদে হামলা-১১টি, দোকান-পাটে অগ্নিকাণ্ড-৩টি, বাড়ী-ঘরে হামলা, ৪টি ।

৪। ত্রিপুরার কংগ্রেস দল উক্ত ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে আজ আগরতলা শহরে কর্মসূচি পালন করেছে (ছবি ও ভিডিও সংযুক্ত)। এই ঘটনার জন্য তারা বিশ্ব হিন্দু পরিষদ এবং বজরাংগী দল এবং ত্রিপুরা বিজেপি কে দায়ী করেছে।