নোয়াখালীতে আ.লীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা

নোয়াখালী প্রতিনিধিনোয়াখালী প্রতিনিধি
প্রকাশিত: ৫:৩২ অপরাহ্ণ, ২৮/১০/২০২১

ছবি; সংগৃহীত

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে আবু ছায়েদ ভূঞা রিপন (৪৮) নামে এক আওয়ামী লীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। এ সময় হত্যাকারীরা তার সঙ্গে থাকা আড়াই লাখ টাকা ও ৩টি মোবাইল ফোন নিয়ে যায়। বৃহস্পতিবার (২৮ অক্টোবর) সকাল ৬টার দিকে পুলিশ নিহতের বাড়ির কাছের বাদি গাছতলা এলাকা থেকে মরদেহ উদ্ধার করে।

নিহত আবু ছায়েদ ভূঞা রিপন উপজেলার মীরওয়ারিশ ইউনিয়নের তালুয়া চাঁদপুর গ্রামের মৃত রফিক ভূঞার ছেলে। তিনি মীরওয়ারিশ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। তিনি বেগমগঞ্জের চৌমুহনী চৌরাস্তায় লাল-সুবজ বাস কাউন্টারের মালিক ছিলেন বলে জানিয়েছে স্থানীয় সূত্র।

ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. জাহাঙ্গীর আলম জানান, আজ ভোরে বারিরহাট বাজার সড়কে রিপনের লাশ পড়ে থাকতে দেখেন মসজিদের ইমাম ও মুসল্লিরা। পরে বিষয়টি তারা মাইকে ঘোষণা করলে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে আসেন। নিহতের পায়ের ওপর মোটরসাইকেলটি পড়েছিল। এ ছাড়া মাথায় প্রচণ্ড আঘাতের কারণে তার মগজ বের হয়েছিল।

রিপন ধীরে মোটরসাইকেল চালাতেন। তার সঙ্গে তিনটি মোবাইল ফোন সবসময় থাকলেও লাশের আশপাশে কোন মোবাইল পাওয়া যায়নি। আর তার পকেটে কোনো টাকাও ছিল না।

বেগমগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর জাহিদুল হক রনি জানান, গতকাল বুধবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে বেগমগঞ্জ বাস কাউন্টার থেকে আবু সায়েদ রিপন মোটরসাইকেলে নিজ বাড়ি যাচ্ছিলেন। এ সময় তার গতিরোধ করে দুর্বৃত্তরা ধারালো অস্ত্র দিয়ে তাকে ৮-১০টি কোপ দেয়। এতে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

আজ ভোরে মুসল্লিরা নামাজ পড়তে যাওয়ার পথে ওই এলাকায় তার লাশ দেখে পুলিশে খবর দেন। পরে নিহতের লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ। বিষয়টি খতিয়ে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।

Nagad

 

সারাদিন/২৮অক্টোবর/এএইচ