মিটফোর্ড থেকে বিপুল নকল ওষুধ জব্দ, আটক ৩

নিজস্ব প্রতিবেদকনিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ৪:১৭ অপরাহ্ণ, ১৯/০৯/২০২১

নকল ওষুধ বিক্রির অভিযোগে রাজধানীর পুরান ঢাকার কোতোয়ালি থানার মিটফোর্ড এলাকায় অভিযান চালিয়ে বিভিন্ন ফার্মেসি ও গোডাউন থেকে বিপুল পরিমাণ নকল ওষুধ জব্দসহ তিনজনকে আটক করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) গোয়েন্দা লালবাগ বিভাগ।

শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) তাদের আটক করা হয়। আটকরা হলেন- মেডিসিন ওয়ার্ল্ড ফার্মেসির ফয়সাল আহমেদ (৩২), লোকনাথ ড্রাগের সুমন চন্দ্র মল্লিক (২৭) ও রাফসান ফার্মেসির মো. লিটন গাজী (৩২)।

রোববার (১৯ সেপ্টেম্বর) ডিবির যুগ্ম কমিশনার মাহাবুব আলম সাংবাদিকদের জানান, আটক তিন জনেরই রয়েছে একাধিক গোডাউন ও ফার্মেসি। সেখান থেকে দেশের বিভিন্ন জেলার ফার্মেসিতে চাহিদার ভিত্তিতে বাজারজাত করে আসছিল তারা।

ভেজাল ওষুধ তৈরি কেন বন্ধ করা যাচ্ছে না জানতে চাইলে তিনি বলেন, বন্ধ হচ্ছে না বিষয়টি এমন নয়। এখন অনেকটা নিয়ন্ত্রণের মধ্যে আছে। আমাদের পাশাপাশি ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তরও ভেজাল ওষুধের বিরুদ্ধে অভিযান চালাচ্ছে।

ভেজাল ওষুধ উৎপাদন থেকে শুরু করে সরবরাহ পর্যন্ত সাইকেলটা কীভাবে কাজ করে জানতে চাইলে ডিবির এই কর্মকর্তা বলেন, ভেজাল ওষুধ বাজারজাতকরণের ক্ষেত্রে এই সাইকেলটাই সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ। উৎপাদনকারী কোনো না কোনো ধরনের চাহিদা বাজার থেকে পেয়ে থাকেন। তাদের নিশ্চয়ই বলা হয়, এই ওষুধ তৈরি করে দেন আমারা বাজারে চালিয়ে দেবো। তবে সাইকেলের আসল কেন্দ্র হচ্ছে মিটফোর্ড। মিডফোর্ড থেকেই নকল ওষুধ দেশের সব ফার্মেসিতে যাচ্ছে।

ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের উপ পরিচালক নাঈম গোলদারের দাবি, জনবল সংকটের পরও বিভিন্ন সময় অভিযান পরিচালনা করছেন তারা। তবে বাজারে নকল ওষুধের সরবরাহ কেন বন্ধ হচ্ছে না মেলেনি সেই প্রশ্নের সদুত্তর। ভেজাল ওষুধ খেয়ে কিডনি বা লিভার জটিলতাসহ নানা সমস্যায় পড়ছেন রোগীরা। তাই ফার্মেসি থেকে কেনার সময় ওষুধ প্রশাসনের রেজিস্টার্ড নম্বর দেখে নেওয়ার পরামর্শ পুলিশের।

Nagad

 

সারাদিন/১৯সেপ্টেম্বর/এএইচ