যমুনা নদীতে টানেল নির্মাণে সমীক্ষা চলছে: নৌ প্রতিমন্ত্রী

সারাদিন ডেস্কসারাদিন ডেস্ক
প্রকাশিত: ৭:৪০ অপরাহ্ণ, ১৫/০৯/২০২১

যমুনা নদীতে কর্ণফুলীর মতো আরেকটি টানেল নির্মাণে সমীক্ষা চলছে বলে জানিয়েছেন নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী।

বুধবার (১৫ সেপ্টেম্বর) দুপুরে সচিবালয়ে সেক্রেটারিয়েট রিপোর্টার্স ফোরাম আয়োজিত সংলাপে তিনি একথা জানান।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু সেতুর বিকল্প একটি সেতুর প্রয়োজন আছে, দ্বিতীয় একটি টানেলের সমীক্ষা কার্যক্রম চলছে।

সমীক্ষার ফলাফল ইতিবাচক হলে ভবিষ্যতে সেখানে টানেল নির্মাণ করা হবে। এটি বাস্তবায়িত হলে কর্ণফুলীর পর যমুনায় হবে দেশের দ্বিতীয় টানেল। এসময় নদীতীরের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের তাগিদ দেন নৌ প্রতিমন্ত্রী।

বাংলাদেশ সেক্রেটারিয়েট রিপোর্টার্স ফোরাম (বিএসআরএফ) সংলাপটির আয়োজন করে। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনটির সভাপতি তপন বিশ্বাস। সঞ্চালনা করেন সাধারণ সম্পাদক মাসউদুল হক।

নৌ প্রতিমন্ত্রী বলেন, যমুনা নদীকে ঘিরে অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডের জন্য আরেকটি পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। যমুনা নদী অর্থনৈতিক করিডোর। এই নদীতেও তিস্তার মতো প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে। ভাঙনের হাত থেকে জমি রক্ষা করা এবং নদীর পানিকে ব্যবহার করে কৃষি অর্থনীতিকে শক্তিশালী করা হবে।

Nagad

খালিদ মাহমুদ আরও বলেন, তিস্তা নদীকে ঘিরে অনেকগুলো শাখা নদী আছে। এ নদীগুলোকে ঘিরে আমাদের পরিকল্পনায় রয়েছে।

প্রতিবছর বন্যার সময় তিস্তা নদী ভেঙে যাচ্ছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ভাঙনরোধ সঠিক ব্যবস্থাপনার মধ্যে নিয়ে আসা হবে। নদীর পানি ধরে রেখে কাজে লাগানোর জন্য প্রকল্প নেওয়া হয়েছে।

তিস্তা নদী ঘিরে পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের অধীনে প্রকল্প নেওয়া হয়েছে জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী জানান, এটা নিয়ে পানি সম্পদ মন্ত্রণালয় কাজ করছে। প্রধানমন্ত্রীর প্রস্তাবনায় আছে, চীন সরকার আগ্রহ প্রকাশ করেছে। এর বাইরেও অনেকগুলো দেশ বিশেষ করে ইউরোপীয় দেশ এবং ভারত আগ্রহ প্রকাশ করেছে। সেগুলো পর্যালোচনা চলছে।