এপ্রিলে রেমিট্যান্স এসেছে প্রায় ২০৭ কোটি ডলার

নিজস্ব প্রতিবেদক:নিজস্ব প্রতিবেদক:
প্রকাশিত: ৮:৪৯ অপরাহ্ণ, ০৩/০৫/২০২১

বিদায়ী এপ্রিল মাসে প্রবাসীরা প্রায় ২০৭ কোটি ডলার পাঠিয়েছে। একক মাস হিসাবে এটি তৃতীয় সর্বোচ্চ এবং গত অর্থবছরের একই সময়ের চেয়ে প্রায় দ্বিগুণ।

বাংলাদেশ ব্যাংকের হালনাগাদ প্রতিবেদনে এসব তথ্য পাওয়া গেছে।

রেমিট্যান্স প্রবাহ স্থিতিশীল থাকায় ঊর্ধ্বমুখী অবস্থানে রয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ। বর্তমানে দেশে রিজার্ভ দাঁড়িয়েছে প্রায় ৪৫ বিলিয়ন ডলার।

বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এপ্রিল মাসে প্রবাসীরা ২০৬ কোটি ৭ লাখ ডলার রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন প্রবাসীরা। মার্চে পাঠিয়েছিলেন ১৯১ কোটি ৬৬ লাখ মার্কিন ডলার। গেলো বছরের জুলাই থেকে চলতি বছরের এপ্রিল পর্যন্ত রেমিট্যান্সের প্রবৃদ্ধি হয়েছে ৩৯ শতাংশ।

২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেটে ২ শতাংশ হারে প্রণোদনা ঘোষণা করা হয়। বৈধ উপায়ে প্রবাসী আয় বাড়াতে এমন সিদ্ধান্ত নেয় সরকার। সে অনুযায়ী, গত বছরের ১ জুলাই থেকে প্রবাসীরা ব্যাংকিং চ্যানেলে টাকা পাঠালে প্রতি ১০০ টাকার বিপরীতে ২ টাকা প্রণোদনা পেয়ে আসছেন। এর ফলে করোনার মধ্যেও রেকর্ড গড়ছে রেমিট্যান্স।

বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মো. সিরাজুল ইসলাম বলেন, চলতি অর্থবছরের শুরু থেকেই প্রবাসীরা আগের চেয়ে বেশি অর্থ দেশে পাঠাচ্ছেন। রেমিট্যান্সর বড় প্রবৃদ্ধি আমাদের অর্থনীতির জন্য আর্শিবাদ। রেমিট্যান্সে বড় প্রবৃদ্ধির কারনে দেশের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ বাড়ছে। আমাদের রিজার্ভের পরিমান এখন ৪৪ বিলিয়নের বেশি। অন্যদিকে রেমিট্যান্সের কারনে ব্যাংকগুলোতে প্রতিনিয়ত নতুন তারল্য যোগ হচ্ছে। এতে দেশের মুদ্রাবাজার অতীতের যে কোন সময়ের তুলনায় এ মুহুর্তে অনেক বেশি লিক্যুইড।

Nagad

সারাদিন/৩মে/এএইচ