বিজেপির দিলীপ ঘোষ’কে নিয়ে বিদ্রুপে তারকারা

সারাদিন ডেস্কসারাদিন ডেস্ক
প্রকাশিত: ২:৫৫ অপরাহ্ণ, ০৩/০৫/২০২১

সদ‍্য সমাপ্ত বিধানসভা নির্বাচনের বড় ফ্যাক্টর হয়ে দাঁড়িয়েছিল দল বদলের হাওয়া। কিন্তু সেই হাওয়া কার্যত উড়ে গেল সবুজ ঝড়ে । পশ্চিমবঙ্গে হ্যাট্রিক করেছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যের দল । নিরঙ্কুশ সংখ্যা গরিষ্ঠতায় ফের ক্ষমতায় তৃণমূল । গনণা শুরুর সময় সেয়ানে-সেয়ানে লড়াই হলেও, বেলা বাড়তেই গ্রাফটা পরিষ্কার হতে থাকে । তাতে দেখা যায়, প্রধান প্রতিপক্ষ দল বিজেপিকে অনেকটা পিছনে ফেলে জয়ের পথ নিষ্কন্টক করেছে তৃণমূল । ২১৫টি আসন নিজেদের দখলে রেখেছে জোড়া ফুল, অন্যদিকে তিন সংখ্যার ঘরে প্রবেশও করতে পারেনি পদ্ম । সংখ্যাটা আটকে গিয়েছে ৭৫-এ ।

বাংলায় সবুজ ঝড়ের আভাস পাওয়া মাত্র সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে শুরু হয়ে গিয়েছে জয়োল্লাস আর ব্যাঙ্গ, বিদ্রুপ, কটূক্তি । ফেসবুকে ঘুরে বেড়াচ্ছে হরেক রকম মিম । সেই ট্রেন্ডে গা ভাসিয়েছেন তাবড় তাবড় সেলেবরাও । বিজেপি-তে যোগ দিয়েছিলেন যে তারকারা, তাদের টিকিটিও খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না । অন্যদিকে, সোশ্যাল মিডিয়ায় এখন সক্রিয় বিজেপি বিরোধী শক্তিরা। নিউজ১৮

বিজেপি’র রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষকে প্রকাশ্যেই বিদ্রুপ করলেন অভিনেত্রী স্বস্তিকা মুখার্জী, মিমি চক্রবর্তী, অভিনেতা পরমব্রত চ্যাটার্জীরা। তিন তারকার নিশানায় দিলীপ ঘোষ। ‘বারমুডা’ প্রসঙ্গ তুলে বিজেপির রাজ্য সভাপতিকে বিঁধলেন স্বস্তিকা-মিমি। পরমব্রত টুইট করলেন ‘রগড়ে দেব’ মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে।

গতকাল দুপুরের মধ্যেই তৃণমূল কংগ্রেসের জয়ের আভাস মেলে। তাতেই স্বস্তিকা টুইটে প্রথমে লেখেন বাবা সন্তু মুখার্জীর ‘ভবানীপুরের ভাষা’ বড্ড মিস করছেন তিনি। তার ফোন করে বিরোধীপক্ষের লোকজনকে কথা শোনানোও মিস করছেন। সেই কারণে বাবার অনারেই এদিন স্বস্তিকা নিজের টেলিভিশনের আওয়াজ ৯০ ভলিউমে বাড়িয়ে রেখেছিলেন। এর পরেই টুইটে ‘বারমুডা’ প্রসঙ্গ টেনে আনেন স্বস্তিকা। ‘ওয়েস্ট বেঙ্গল পোলস’ হ্যাশট্যাগ দিয়ে অভিনেত্রী লেখেন, “আমরা আজকে একটু বারমুডা পরব না? বারমুডা পরব না আমরা?”

প্রসঙ্গত, তৃণমূল নেত্রী মমতা ব্যানার্জীর ভাঙা পা নিয়ে কটাক্ষ করতে গিয়ে তাকে ‘বারমুডা’ পরার পরামর্শ দিয়েছিলেন দিলীপ। এবার ওই প্রসঙ্গে টুইট করে মিমি চক্রবর্তী লেখেন, এই যে বলেছিলেন বারমুডার কথা তিনি কোথায়, ও দাদা।

নির্বাচনের আগে “নিজেদের মতে নিজেদের গান” তৈরি করেছিলেন অনির্বাণ ভট্টাচার্য, পরমব্রত চ্যাটার্জী, ঋদ্ধি সেন, ঋতব্রত মুখার্জী। গানটির প্রসঙ্গে দিলীপ ঘোষ বলেছিলেন, শিল্পীদের বলছি আপনারা নাচুন, গান। ওটা আপনাদের শোভা পায়। রাজনীতি করতে আসবেন না। ওটা আমাদের ছেড়ে দিন। না হলে রগড়ে দেব।’’

Nagad

ওই প্রসঙ্গে পরমব্রত লেখেন, “আজ বিশ্ব রগড়ানি দিবস ঘোষিত হোক!”

এরপর আরও একটি টুইটে লেখেন, তোমার কোনো কোনো কোনো, কোনো কোনো কোনো কোনো কথা শুনবো না আর, যথেষ্ট বুঝি কিসে ভালো হবে, নিজেদের মতো ভাববো।

এদিকে তৃণমূল সাংসদ ও নায়িকা নুসরাত জাহান ‘দিদি ও দিদি’ স্লোগানের আদলে হ্যাশট্যাগে লেখেন, ‘দিদি জিও দিদি’। জনপ্রিয় গায়ক নচিকেতা চক্রবর্তী ফেসবুকে লেখেন, সদর্পে ওই দলকে জানিয়ে দেয়া গেল— ‘বাংলাটা এখনও গুজরাট হয়ে যায়নি।’

সারাদিন/৩মে/এএইচ