পাহাড়ীদের ভরসা ‘হ্যালো ছাত্রলীগ’ ফোন করলেই অ্যাম্বুলেন্স

বান্দরবন সংবাদদাতা:বান্দরবন সংবাদদাতা:
প্রকাশিত: ৬:০০ অপরাহ্ণ, ১৭/০৪/২০২১

দরিদ্র অসহায় পাহাড়ীদের ভরসা হয়ে উঠেছে ছাত্রলীগের অ্যাম্বুলেন্স-সেবার হটলাইন ‘হ্যালো ছাত্রলীগ’। যে কেউ ফোন করলেই চলে আসে অ্যাম্বুলেন্স। রোগীকে দ্রুততম সময়ে পৌঁছে দেয় হাসপাতালে।

মূলত যারা আর্থিক অভাবের কারণে অ্যাম্বুলেন্স ভাড়া করতে পারেন না তাদের জন্যই চলতি বছরের জানুয়ারির প্রথম দিন চালু করা হয়েছে বান্দরবান জেলা ছাত্রলীগের এ ফ্রি অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিস।

বান্দরবান জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি কাউসার সোহাগ বলেন, ব্যাপক সাড়া পাচ্ছেন তারা। এই সেবা চালুর পর থেকে এ পর্যন্ত ‘হ্যালো ছাত্রলীগ’ হটলাইন মোবাইল নম্বরে সরাসরি কল এসেছে ৩ হাজার ৭০৫টি। প্রায় সবাইকে দেয়া হয়েছে অ্যাম্বুলেন্স-সেবা।

‘হ্যালো ছাত্রলীগ’-এ ফোন করে অ্যাম্বুলেন্স-সেবা গ্রহণ করা মো. রুবেল বলেন, “আমার ছেলে ডায়রিয়া রোগে আক্রান্ত হয়ে বাসায় অজ্ঞান হয়ে পড়েছিল। টাকার অভাবে গাড়ি ভাড়া করে হাসপাতালে নিয়ে যেতে পারছিলাম না। ঠিক ওই সময়ে ‘হ্যালো ছাত্রলীগ’ অ্যাম্বুলেন্স মোবাইল নম্বরে যোগাযোগ করা হলে তারা দ্রুত এসে বান্দরবান সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়।’

এ বিষয়ে বান্দরবান জেলা ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক জনি সুশীল বলেন, বান্দরবানে অনেক গরিব মানুষ আছেন, যারা আর্থিক অভাবের কারণে অ্যাম্বুলেন্স ভাড়া করে রোগী চট্টগ্রাম মেডিক্যালে নিয়ে যেতে পারে না। এসব অসহায় মুমূর্ষু রোগীদের উন্নত চিকিৎসা নিশ্চিত করার জন্য আমাদের এ উদ্যোগ। চিকিৎসার অভাবে কারো যেন মৃত্যু না হয়।

শৈনুমে মারমা নামের একজন জানালেন, গত বছর ১২ জুন বান্দরবানে কড়াকড়ি লকডাউন ছিল। ওই সময় কানের তীব্র ব্যথায় ভুগছিলেন তিনি। উপায় না পেয়ে ফোন করেন ‘হ্যালো ছাত্রলীগ’ হটলাইনে। বিনা মূল্যে চিকিৎসার ব্যবস্থা হয় মাত্র ১৫ মিনিটের মধ্যে।

Nagad

শৈনুমে জানান, বান্দরবানে ছাত্রলীগ রাজনীতি ছাড়াও মানবতার কাজে নানা অবদান রেখে যাচ্ছে।

মান্যজন হিসেবে পরিচিত প্রবীণ মং নু খইং জানান, মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিংয়ের পুত্র রবি বাহাদুর উসিংহাইয়ের নেতৃত্বে বান্দরবানে ছাত্রলীগ প্রমাণ করেছে আওয়ামী লীগ জনগণের পরম বন্ধু। জনগণের জন্য ছাত্রলীগ এখন মাঠে। ছাত্রলীগের এমন কাজ বান্দরবানবাসীর জন্য খুব উপকারে এসেছে বলে মনে করেন তিনি।

‘হ্যালো ছাত্রলীগ’ সেবার বিষয়ে জেলা যুবলীগ সভাপতি কেলুমং বলেন, ‘বান্দরবানে ছাত্রলীগ কর্মীরা যেকোনো দুর্যোগ, মহামারি, বন্যাকালীন সময় এলে তারা মানবতার কাজে সার্বক্ষণিক মাঠে কাজ করে। এটি ছাত্রলীগের বড় অর্জন। ছাত্রলীগ এসব কাজে ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে পারলে জনগণের বুকে স্থান পাবে।’

১ জানুয়ারি উদ্বোধনী সভায় জেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি আশীষ বড়ুয়া বলেন, ‘রোগী বহনে বান্দরবানে অ্যাম্বুলেন্সের সঙ্কট থাকায় কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের উপ-ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক রবিন বাহাদুর ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে অ্যাম্বুলেন্স প্রদানের উদ্যোগ নেন। যে কেউ ফোন করে “হ্যালো ছাত্রলীগ” অ্যাম্বুলেন্স সেবা গ্রহণ করতে পারবে।’

সারাদিন/১৭এপ্রিল/এএইচ