কিউবায় ক্যাস্ত্রো যুগের অবসান

সারাদিন ডেস্কসারাদিন ডেস্ক
প্রকাশিত: ১১:৫১ পূর্বাহ্ণ, ১৭/০৪/২০২১

কিউবার কমিউনিস্ট পার্টির প্রধানের পদ থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়েছেন রাউল ক্যাস্ত্রো। দলের চার দিনব্যাপী সম্মেলনের শুরুতে তিনি এমনটি জানিয়েছেন। আর এতেই কিউবায় ক্যাস্ট্রো যুগের অবসান হতে যাচ্ছে।

১৯৫৯ সালে কিউবায় বিপ্লবের পর থেকে বিপ্লবের নেতা ফিদেল ক্যাস্ট্রো শাসন করে আসছিলেন। ২০১১ সালে স্বাস্থ্যগত কারণে ক্ষমতাসীন পিসিসির ফার্স্ট সেক্রেটারির পদ থেকে ফিদেলের অবসরের পর তার ছোট ভাই রাউল ক্যাস্ট্রো দায়িত্ব গ্রহণ করেন। তার শুক্রবারের নতুন এই ঘোষণার মধ্য দিয়ে কিউবায় ক্যাস্ট্রো যুগের অবসান হতে যাচ্ছে।

বিবিসির খবরে বলা হয়, দলের সম্মেলনের শেষ দিনে ভোটাভুটির মাধ্যমে পরবর্তী প্রধান নির্বাচিত করা হবে। তিনি কাউকে উত্তরসূরী হিসেবে উল্লেখ করেননি। দ্বীপরাষ্ট্রটির প্রেসিডেন্ট মিগুয়েল ডিয়াজ-ক্যানেলকে দলের নেতারা পার্টি প্রধান হিসেবে বেছে নিতে পারেন বলে মনে করা হচ্ছে।

কিউবার রাজধানী হাভানায় শুক্রবার (১৬ এপ্রিল) দলীয় সম্মেলনে নেতাদের উদ্দেশে রাউল ক্যাস্ত্রো বলেন, তিনি ‘সাম্রাজ্যবাদবিরোধী চেতনায় উজ্জীবিত ও দৃঢ়প্রত্যয়ী তরুণ প্রজন্মের হাতে’ নেতৃত্ব ছেড়ে দিতে চান।

পিসিসির চারদিনের এই কংগ্রেসে সদস্যদের ভোটে নতুন ফার্স্ট সেক্রেটারিকে নির্বাচিত করা হবে। তবে ৬০ বছর বয়সী দেশটির বর্তমান প্রেসিডেন্ট মিগুয়েল দিয়াজ কানেল তার স্থলাভিষিক্ত হতে পারেন বলে মনে করা হচ্ছে।

কিউবার বিপ্লবের নেতা ফিদেল ক্যাস্ট্রো স্বাস্থ্যগত কারণে দেশটির শাসন ক্ষমতা পরিচালনায় অক্ষম হয়ে পড়লে ২০০৮ সালে কিউবার প্রেসিডেন্ট ও পরে ২০১১ সালে ক্ষমতাসীন পিসিসির ফার্স্ট সেক্রেটারির দায়িত্ব গ্রহণ করেন রাউল ক্যাস্ট্রো। ২০১৬ সালে ৯০ বছর বয়সে ফিদেল মারা যান।

Nagad

ফিদেল ক্যাস্ট্রো ১৯৫৯ সালে কিউবার দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় সিয়েরা মায়েস্ত্রার পাহাড়ি অঞ্চল থেকে দেশটির একনায়ক ফুলগেনসিও বাতিস্তার বিরুদ্ধে সশস্ত্র বিদ্রোহ শুরু করলে রাউল ক্যাস্ট্রোও এই বিদ্রোহে যোগ দেন। তিনি ছিলেন তার ভাইয়ের বিশ্বস্ততম সহযোগী ও উপদেষ্টা।

রাউল ক্যাস্ট্রোর অধীনে কিউবায় একদলীয় শাসনই অব্যাহত থাকে। তবে তার শাসনামলে ২০১৪ থেকে ২০১৬ সালের মধ্যে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার সাথে ঐতিহাসিক আলোচনার সাথে সাথে প্রথমবারের মতো যুক্তরাষ্ট্রের সাথে কিউবার সম্পর্কের উন্নতি হয়। তবে ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রেসিডেন্ট হিসেবে ক্ষমতা গ্রহণের পর দেশটির ওপর নতুন করে অবরোধ দুই দেশের সম্পর্কে আবার অবনতি ঘটায়।

বর্তমান প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন তার পূর্বসূরী ট্রাম্পের কিছু অবরোধমূলক ব্যবস্থা শিথিল করার কথা জানালেও শুক্রবার হোয়াইট হাউজ জানায়, এটি বর্তমানে বাইডেনের শীর্ষ অগ্রাধিকারের বিষয় নয়।

অবশ্য শুক্রবারের কংগ্রেসে রাউল ক্যাস্ট্রো তার ভাষণে জানান, তার দেশ যুক্তরাষ্ট্রের সাথে ‘পারস্পরিক সম্মানসূচক সংলাপের অগ্রগতিতে’ আগ্রহী কিন্তু কিন্তু এটি তার ‘পররাষ্ট্রনীতি ও আদর্শের’ সাথে কোনো প্রকার আপোষ করবে না।

প্রতি পাঁচ বছর পর অনুষ্ঠিত কংগ্রেস কিউবার ক্ষমতাসীন পিসিসির সর্বোচ্চ গুরুত্বপূর্ণ সভা। এই সভায় মিলিত হয়ে দলীয় সদস্যরা নেতৃত্ব নির্বাচন ও নীতি নির্ধারণ করেন।

সারাদিন/১৭ এপ্রিল