সালথায় সংঘর্ষ : ঘটনাস্থল পরিদর্শনে আ’লীগের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ

সারাদিন ডেস্কসারাদিন ডেস্ক
প্রকাশিত: ৯:০৫ অপরাহ্ণ, ০৮/০৪/২০২১

হেফাজতে ইসলামকে ‘এদেশের নব্য রাজাকার’ উল্লেখ করে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ বলেছেন, সালথায় তাণ্ডবের ঘটনায় হেফাজতের সাথে তাদের দোসর বিএনপি-জামায়াতের লোকেরা জড়িত। এদেশকে পাকিস্তান-আফগানিস্তান বানানোর ষড়ডন্ত্রের অংশ হিসেবে তারা এ হামলা চালিয়েছে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে সালথায় ঘটনাস্থল পরিদর্শনে এসে নেতৃবৃন্দ এক সমাবেশে এ কথা বলেন।

উপজেলা কার্যালয়ের চত্বরে অনুষ্ঠিত এ সমাবেশে বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য কর্নেল ফারুক হোসেন এমপি, আরেক প্রেসিডিয়াম সদস্য আব্দুর রহমান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ এমপি, আরেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাসিম, সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম এমপি, সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম কামাল প্রমুখ। উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি দেলোয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে এসময় জেলা ও স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

এসময় কর্নেল ফারুক হোসেন বলেন, এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত হবে। আমরা প্রশাসনকে বলেছি ভিডিও ফুটেজ দেখে জড়িতদের চিহ্নিত করুন। নিরীহ কাউকে যেন হয়রানী করা না হয়। আর জড়িতদের মধ্যে যদি আওয়ামী লীগের কেউ থাকে তাকেও যেন রেহাই দেয়া না হয়।

আব্দুর রহমান স্থানীয় একজন হেফাজত নেতার (মাওলানা আকরাম হোসেন) নামোল্লেখ করে বলেন, তিনি হেফাজত ও বিএনপি-জামায়াতের স্বার্থ রক্ষার জন্যই এ হামলার নেতৃত্ব দিয়েছেন।

পরে নেতৃবৃন্দ ক্ষতিগ্রস্ত উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়, বাসভবন ও ভূমি অফিস পরিদর্শন করেন। এসময় ফরিদপুরের জেলা প্রশাসকসহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন।

Nagad

উল্লেখ্য, গত সোমবার রাতে সালথায় পুলিশের সাথে হাজার হাজার জনতার এ সংঘর্ষ হয়। এ সময় তারা প্রথমে থানা ঘেরাও, পরে সরকারি বিভিন্ন কার্যালয় পুড়িয়ে দেয়া হয়। এতে দুজন নিহত হয়। র‍্যাব ও পুলিশসহ আরো অনেকে আহত হন।

এঘটনায় ৪ হাজার জনকে আসামি করে পুলিশ একটি মামলা করেছে। জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে দুটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।