লুক্সেমবার্গকে ৩-১ গোলে হারিয়েছে রোনালদোরা

সারাদিন ডেস্কসারাদিন ডেস্ক
প্রকাশিত: ৯:৩৩ পূর্বাহ্ণ, ৩১/০৩/২০২১

গোল বিতর্কের আলোচনাটা এখনো তুঙ্গে। এরই মধ্যে কাঙ্ক্ষিত জয় তুলে নিয়েছে পর্তুগাল। মঙ্গলবার বিশ্বকাপ বাছাই পর্বের ম্যাচে লুক্সেমবার্গকে ৩-১ গোলে হারিয়েছে রোনালদোরা।

আজারবাইজানের বিপক্ষে জিতে বাছাইপর্ব শুরু করা পর্তুগাল পরের ম্যাচে সার্বিয়ার সাথে করে ২-২ গোলে ড্র। ওই ম্যাচের শেষ দিকে বল গোললাইন পেরিয়ে গেলেও রেফারি গোল না দেয়ায় রোনালদোর ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া দেখেছিল গোটা বিশ্ব। শেষ বাঁশি বাজার আগে আর্ম ব্যান্ড ছুড়ে মাঠ থেকে বেরিয়েও গিয়েছিলেন সিআরসেভেন।

লুক্সেমবার্গের বিপক্ষে রোনালদো জ্বলে উঠলেন পুরোদমে। তিনি পেয়েছেন একটি গোল। কিন্তু ভাগ্য সহায় হলে তার গোল হতো একাধিক। কিন্তু তা হয়নি। পুরো ম্যাচে রোনালদোর দল গোলের উদ্দেশে শট নেয় ২০টি, এর ১১টি ছিল লক্ষ্যে।

অথচ ম্যাচে প্রথম লিড নিয়েছিল লুক্সেমবার্গই। ৩০ মিনিটে সতীর্থের ক্রসে ডি-বক্সে দারুণ ডাইভিং হেডে বল জালে পাঠান ফরোয়ার্ড রদ্রিগেজ (১-০)। প্রথমার্ধের অতিরিক্ত সময়ে গোল শোধ করে পর্তুগাল। জোয়াও ফেলিক্সের বদলি নামা পেদ্রো নেতো ডি-বক্সের বাঁ দিকে একজনকে কাটিয়ে ক্রস বাড়ান। ছয় গজ বক্সে লাফিয়ে দারুণ হেডে গোল করেন ফরোয়ার্ড জোতা (১-১)।

দ্বিতীয়ার্ধের ৫০ মিনিটে দলকে এগিয়ে নেন রোনালদো। ডান দিক থেকে কানসেলোর ক্রসে রোনালদোর দারুণ ভলি, বল জড়ায় জালে। জাতীয় দলের হয়ে রোনালদোর গোল হলো ১০৩টি। আন্তর্জাতিক ফুটবলে ইরানের আলি দাইয়ের সবচেয়ে বেশি ১০৯ গোলের রেকর্ড ছোঁয়ার পথে আরেক ধাপ এগিয়ে গেলেন পর্তুগিজ উইঙ্গার।

৭৮ মিনিটে গোলের সহজ সুযোগ নষ্ট করেন রোনালদো। সামনে বাধা ছিল শুধু গোলরক্ষক। কিন্তু গোলরক্ষক বরাবর শট মারেন রোনালদো। পরে তিনি বল জালে পাঠালেও অফসাইডের কারণে গোল মেলেনি।

Nagad

৮০ মিনিটে পর্তুগালের স্কোর ৩-১ করেন দ্বিতীয়ার্ধে বদলি নামা পালহিনহা। ৮৬ মিনিটে দশজনের দলে পরিণত হয় লুক্সেমার্গ। সানচেজকে ফাউল করে দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন স্বাগতিক ডিফেন্ডার মাক্সিম।

তিন ম্যাচে ৭ পয়েন্ট নিয়ে এ গ্রুপের শীর্ষে আছে পর্তুগাল। অন্য ম্যাচে আজারবাইজানকে ২-১ গোলে হারানো সার্বিয়া সমান পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে আছে।
‘ই’গ্রুপের ম্যাচে বেলারুশকে ৮-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে ফিফা র‍্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ দল বেলজিয়াম। ‘জি’গ্রুপে জিব্রাল্টারকে ৭-০ গোলে হারিয়েছে নেদারল্যান্ডস।