‘এভাবে বেশিদিন থাকলে তাকে জীবিত বাসায় নিয়ে যেতে পারবো না’

নিজস্ব প্রতিনিধিনিজস্ব প্রতিনিধি
প্রকাশিত: ১১:০১ পূর্বাহ্ণ, ২৫/০১/২০২০

বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্যের অবস্থা খুবই খারাপ। তার সুচিকিৎসার জন্য মুক্তি চেয়ে বিশেষ আবেদনের কথা ভাবছে তার পরিবার।

শুক্রবার (২৪ জানুয়ারি) বিকেলে খালেদা জিয়ার সাথে সাক্ষাৎ শেষে তার সেজো বোন সেলিমা ইসলাম সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তার বোন সেলিমা ইসলাম। এসময় তার সেজো বোন সেলিমা ইসলামসহ পরিবারের কয়েকজন সদস্য খালেদা জিয়ার সাথে সাক্ষাৎ করেন।

তিনি বলেন, ‘তার (খালেদা) শরীরের যে অবস্থা এভাবে বেশিদিন থাকলে তাকে জীবিত বাসায় নিয়ে যেতে পারবো না’।

খালেদা জিয়ার অবস্থাতো খুবই খারাপ। সে শুধু বমি করছে। গায়ে জ্বর আছে। ব্যথায় কষ্ট পাচ্ছে। বাম হাতটা সম্পূর্ণ বেঁকে গেছে। তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য অন্য কোথাও নিতে হবে। এ হাসপাতালে এটা সম্ভব না বলে জানান সেলিমা ইসলাম।

হাসপাতালের ডাক্তাররা তাকে কেমন দেখছেন, সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নে সেলিমা ইসলাম বলেন, তারা যে চিকিৎসা দিচ্ছে এতে কোনো কাজ করছে না।

পরিবারের পক্ষ থেকে সরকারের কাছে কোনো আবেদন করা হবে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমরা এখনো কোনো আবেদন করিনি। ওনার যে অবস্থা ওনাকে মুক্তি দিয়ে উন্নত চিকিৎসার বন্দোবস্ত করতে হবে। শরীরতো খুবই খারাপ। সে তো ব্যথায় কাতরাচ্ছে, তার ডায়াবেটিক আজকেও ১৫ পাওয়া গেছে। এভাবে কতদিন চলবে? এ হাসপাতালেতো এক বছরের কাছাকাছি সময় রয়েছে, তার শরীরের কোনো উন্নতি হচ্ছে না। বরং দিনদিন অবনতি হচ্ছে। এজন্য আমরা চাই ওনাকে উন্নত হাসপাতালে চিকিৎসা করাতে।

খালেদা জিয়ার মুক্তির বিষয়ে সরকার আইনের কথা বলছেন, এই ক্ষেত্রে পরিবারের পক্ষ থেকে বিশেষ কোনো আবেদন করবে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমরা ভাবছি, আমরা আবেদন করবো। তবে এটা এখনো ঠিক করিনি। কারণ তার শরীরের যে অবস্থা, এই অবস্থায় বেশিদিন থাকলে তাকে জীবিত বাসায় নিয়ে যেতে পারবো না।

নির্বাচনের বিষয়ে খালেদা জিয়া কোনো বার্তা দিয়েছেন কিনা, সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, সেতো কথাই বলতে পারছে না। তবে দেশবাসীর কাছে দোয়া প্রার্থনা করেছে।

এর আগে বিকেল ৩টার দিকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালে প্রবেশ করেন পরিবারের সদস্যরা। সঙ্গে নিয়ে যান বাসায় রান্না করা খাবার ও কিছু ফলমূল।

পরিবারের বরাত দিয়ে বিএনপির চেয়ারপারসনের প্রেস উইং সদস্য শামসুদ্দিন দিদার জানান, সাক্ষাতে আসা পরিবারের সদস্যরা হলেন খালেদা জিয়ার সেজো বোন সেলিমা ইসলাম, ছোট ভাই শামীম ইস্কান্দার, তার স্ত্রী কানিজ ফাতেমা ও ছেলে অভিক ইস্কান্দার, সাইদ ইস্কান্দারের স্ত্রী নাসরিন ইস্কান্দার। আরাফাত রহমান কোকোর শাশুড়ি ফাতেমা রেজা হাসপাতালে এলেও সাক্ষাৎকারের তালিকায় তার নাম না থাকায় প্রবেশ করতে দেওয়া হয়নি।

সারাদিন/২৫ জানুয়ারি