মতিঝিল আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজ নিয়ে অপপ্রচারকারীদের সতর্ক করলেন শিক্ষা উপমন্ত্রী

সারাদিন ডেস্কসারাদিন ডেস্ক
প্রকাশিত: ১১:২৫ পূর্বাহ্ণ, ২৪/০১/২০২০

শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল রাজধানীর মতিঝিল আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রকারী ও অপপ্রচার করে মানববন্ধনকারীদের সতর্ক করেছেন। কিছু নামধারী অভিভাবক তাদের অবৈধ ভর্তি বাণিজ্য করতে না পারায় ক্ষুব্ধ হয়ে মানববন্ধনসহ সুনামধন্য এই স্কুলটির বিরুদ্ধে নানা ষড়যন্ত্র ও অপপ্রচার করছেন বলেও জানান তিনি।

বৃহস্পতিবার (২৩ জানুয়ারি) সকালে মতিঝিল আইডিয়াল স্কুল এন্ড কলেজের বার্ষিক পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল। অনুষ্ঠান শেষে মতিঝিল আইডিয়াল স্কুল এন্ড কলেজের বার্ষিক পুরষ্কার বিতরণ করেন তিনি।

শিক্ষা উপমন্ত্রী বলেন, শিক্ষকরা তিলে তিলে এই প্রতিষ্ঠানটি গড়ে তুলেছেন। কিন্তু কিছু অভিভাবক তা সহ্য করতে পারছেন না।

অপপ্রচারকরীদের প্রতি হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেন, অপপ্রচার করে মানববন্ধনকারীদের পরিচয় জানা আছে। কার বিরুদ্ধে কতটা মামলা আছে, কার পেশা কি, কার পরিচয় কি সবই জানা আছে। প্রশাসনের সক্ষমতা সম্পর্কে আপনাদের ধারণা নাই। মানববন্ধন করে আরাজকতা করলে, একটা একটা করে তুলে নিয়ে আসবো।

শিক্ষা উপমন্ত্রী আরও বলেন, প্রতিটি প্রতিষ্ঠানের নিজস্ব একটি সংস্কৃতি ও স্বকীয়তা আছে। সে স্বকীয়তা ধরে রাখতে হবে। যে যার যার ধর্মীয় অনুশাসন মেনে চলবে। তাতে কোন বিদ্যালয় বাধা দিতে পারে না। আমরা সম্প্রীতির বাংলাদেশ গড়তে চাই। যারা অপপ্রচার করেছেন তাদের জন্য বলতে চাই, তওবা করে আল্লাহর ওয়াস্তে মানুষ হওয়া শিখেন। হানাহানী, হিংসা বা নিরাপত্তা বিঘ্নিত করার চেষ্টা আপনারা করবেন না।

আওয়ামী লীগ সরকার ইসলামী আরবি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করেছে জানিয়ে মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেন, ১৮০০টি মাদ্রাসায় নতুন ভবন তৈরি করেছে আওয়ামী লীগ সরকার। এজন্য ৬ হাজার কোটি টাকা ব্যায় করা হয়েছে। সরকার দ্বীনি শিক্ষার জন্য কোন আপোষ করে না।

তিনি বলেন, দ্বীনের নাম করে যারা মাস্তানী করেন তাদের জন্য বলতে চাই, এসব মাস্তানী আর চলবে না। যারা ধর্মের নামে অপপ্রচার করে তারা কয়বার মসজিদের দুয়ারে যান আমাদের জানা আছে। কোন ব্যাংকের সুদ খান তাও জানা আছে।

আইডিয়াল স্কুলের সভাপতি ও বাংলাদেশ ইউনেস্কো জাতীয় কমিশনের ডেপুটি সেক্রেটারি জেনারেল আবু হেনা মোরশেদ জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ব্যারিস্টার শাহ আলী ফরহাদ। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন প্রতিষ্ঠানটির অধ্যক্ষ ড. শাহান আরা বেগম, প্রতিষ্ঠানটির গভর্নিং বডির প্রতিনিধি জাহিদুল ইসলাম টিপুসহ প্রমূখ। অনুষ্ঠানে প্রতিষ্ঠানটির শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও ভালো অভিভাবকরা উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, সংবাদপত্রে কার্ডধারী কতিপয় শিবিরকর্মী ও নামধারী কিছু অভিভাবক একটি সিন্ডিকেট তৈরি করে গত কয়েক বছর ধরে আইডিয়াল স্কুলের বিরুদ্ধে নানা ধরনের অপপ্রচারে লিপ্ত। এই সিন্ডিকেটের অবৈধ ভর্তি ও কোচিং সেন্টার থেকে চাঁদাবাজি বন্ধ হওয়ায় স্কুলটির বিরুদ্ধে অপপ্রচারে নেমেছে। ভূইঁফোড় এই অভিভাবক ফোরাম আইডিয়াল স্কুলের শিক্ষকদের কাছে চাঁদা দাবি করে, নিজ সন্তানদের ফাউ প্রাইভেট/কোচিং করান।

আবার এরাই কোচিংয়ের বিরুদ্ধে মানবন্ধন করেন। নামধারী এই অভিভাবকরা স্কুলটির শিক্ষকদের বিরুদ্ধে নানা ষড়যন্ত্রে লিপ্ত। এরই ধারাবাহিকতায় গত কয়েক সপ্তাহ যাবৎ স্কুলের ছাত্রীদের ওড়না পরা নিয়ে নানা অপপ্রচার করেছে।

সারাদিন/২৪জানুয়ারি/টিআর