পাবলিক প্লেসে ব্যাটারি চার্জ করলেই ফোন হ্যাক!

সারাদিন ডেস্কসারাদিন ডেস্ক
প্রকাশিত: ৫:৪০ অপরাহ্ণ, ২২/০১/২০২০

বিষয়টি সামনে আসতেই চমমে উঠেছেন অনেকেই। কিন্তু এমনটাই চলছে দুনিয়ায়। আপনার ডেটা হ্যাক করার জন্য এই পদ্বতিকে বেঁছে নিয়ে হ্যাকাররা। বিশেষজ্ঞরা বলছে, এয়ারপোর্ট, রেলওয়ে স্টেশন, বাসস্টপ কিংবা ক্যাফের মতো জায়গায় বসানো চার্জিং পয়েন্ট এখন হ্যাকার্সদের টার্গেট পয়েন্ট।

সাইবার বিশেষজ্ঞরা আরও বলছে, পাবলিক প্লেসে ফোন চার্জে বসালে তো বিপদ রয়েছে। চার্জ থেকে ফোন খুলে নিলেও কিন্তু বিপদ কমছে না। কারণ হ্যাকার্সরা চার্জিং পোর্টের মাধ্যমে আপনার ফোনের ওয়াইফাই অন করে ইচ্ছেমতো ব্যবহার করতে পারে। আসলে হ্যাকার্সরা জুস জ্যাকিং বলে একটি প্রযুক্তির মাধ্যমে আপনার স্মার্টফোন অথবা ট্যাবলেট হ্যাক করছে।

তাঁরা বলছে, চার্জিং পয়েন্টে লাগানো চার্জিং কেবেলে যদি ভাইরাস থাকে তাহলে আপনার ফোনের ডেটার নিরাপত্তার কোনও গ্যারেন্টি নেই। পাবলিক চার্জিং পয়েন্টে যদি আপনি নিজের ফোনের কেবল দিয়েও চার্জ করেন তাহলেও আপনার ডিভাইসকে হ্যাক করা যেতে পারে। জুস জ্যাকিংয়ের মাধ্যমে দুভাবে আপনার ফোন থেকে হ্যাকার্সরা ডেটা চুরি করে থাকে।

প্রথমত: পাবলিক চার্জিং পয়েন্টে লাগানো কেবলের মাধ্যমে আপনার ফোনে ম্যালওয়্যার কিংবা ভাইরাস প্রবেশ করিয়ে দেয় হ্যাকাররা

দ্বিতীয়ত: তারপর ক্রলার্স বলে এক ধরনের ডিজিটাল ভাইরাস আপনার ফোনে থাকা ব্যাঙ্ক, ক্রেডিট কার্ড অথবা ডেবিট কার্ড সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য চুরি করে হ্যাকার্সদের কাছে পাঠিয়ে দেয়

অবাক হওয়ার বিষয় হলো, কয়েক সেকেন্ডের মধ্যেই এই ভাইরাস নিজের কাজ সেরে ফেলে।

হ্যাকিংয়ের থেকে বাঁচার উপায় কি? সেক্ষেত্রে মোবাইল চার্জ করার ব্যাপারে আপনাকে সতর্ক থাকতে হবে। এ জন্য বিশেষজ্ঞরা বলছে, বাড়ি থেকে বের হওয়ার সময় ফোন ফুল চার্জ করে বের হোন। এরপর ফোন চার্জ না করতে পারলে সঙ্গে পাওয়ার ব্যাঙ্ক রাখুন। তবে অনেকে মনে করেন, সুইচ অফ করে চার্জ করাও নিরাপদ ।এটিও নিরাপদ নয়। কারণ ফ্ল্যাশ মেমোরির মাধ্যমে ফোন বন্ধ থাকলেও হ্যাকার্সরা ডেটা চুরি করতে পারে

এছাড়াও বিশেষ ধরনের ইউএসবি কেবল ব্যবহার করতে পারেন। এই কেবলগুলি ডেটা মোডকে কানেক্ট করে না। শুধু চার্জিং পিনকে পোর্টের সঙ্গে কানেক্ট করে।