কুষ্টিয়ার খোকসা উপজেলায় আওয়ামী লীগের সম্মেলনে দুগ্রুপের সংঘর্ষ

জেলা প্রতিনিধিজেলা প্রতিনিধি
প্রকাশিত: ৮:২১ অপরাহ্ণ, ২৫/১১/২০১৯

কুষ্টিয়ার খোকসা উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে আওয়ামী লীগের সম্মেলনে দুগ্রুপের সংঘর্ষ হয়েছে বলে জানা গেছে। চেয়ারে বসা নিয়ে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সদর উদ্দিন খাঁন ও কুষ্টিয়া-৪ আসনের সংসদ সদস্য সেলিম আলতাফ জর্জের সমর্থকদের মধ্যে এই ঘটনা ঘটেছে।

এসময় ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ায় প্রায় ৫০ জন নেতাকর্মী আহত হয়েছে বলে জানা গেছে। সোমবার দুপুর ২টার দিকে খোকসা জানিপুর সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠে সাত বছর পর উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন শুরু হয় সেখানেই এ ঘটনা ঘটে।

আহতদের মধ্যে রবিন খান (২৮), জয়নাল মোল্লা (৫৫), শ্রমিক লীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম ওরফে সাইদুল (৪৩), আকাশ (১৮), আছিব (১৬), উজ্জল (৪৮), সাগর (২৬), নয়ন (৩০), লিটন (৩০), জিহাদ (১৭), দুলাল (২৮), মতিন শেখ (৩৫), হজরত (৩২) উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, খোকসা উপজেলা আওয়ামী লীগের মধ্যে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সদর উদ্দিন খাঁন ও সংসদ সদস্য সেলিম আলতাফ জর্জের সমর্থকদের মধ্যে দলীয় কোন্দল রয়েছে। দুপুরে খোকসা উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনকে কেন্দ্র করে সকাল থেকেই নেতাকর্মীরা সভাস্থলে আসতে শুরু করে। বেলা ১০টার দিকে চেয়ারে বসা নিয়ে দুই গ্রুপের নেতা কর্মীদের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। পরে সভাস্থল ত্যাগ করে সদর উদ্দিন খাঁনের সমর্থকরা।

এরপর দুপুর ২টার দিকে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তারিকুল ইসলামের সমর্থকরা লাঠিসোটা নিয়ে সভাস্থল দখলের চেষ্টা করলে পুলিশ তাদের বাধা দেয়। এক পর্যায়ে পুলিশ বেরিকেড উপেক্ষা করে সভাস্থল দখল নিতে গেলে দু পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এর পরে সভাস্থল পরিদর্শন করেন খোকসা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মৌসুমী জেরীন কান্তা ও কুষ্টিয়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) নূরানী ফেরদৌস দিশা। তারা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আহতদের দেখতে যান।

খোকসা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এবিএম মেহেদী মাসুদ জানান, গুরুত্বপূর্ণ আট পয়েন্টে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এ ছাড়া সম্মেলনস্থলের চারিদিকে সাদা পোশাকের পুলিশ রাখা হয়।