এলাকাবাসীর দীর্ঘদিনের দুঃখ কালুরঘাটের জরাজীর্ণ সেতু: সংসদে মোছলেম উদ্দিন

নিজস্ব প্রতিবেদকনিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ৯:১৮ অপরাহ্ণ, ২০/০১/২০২০

সংসদে যোগ দিয়েই চট্টগ্রামের কালুরঘাটে সেতু ও অর্থনৈতিক অঞ্চল চাইলেন চট্টগ্রাম-৮ আসনের নবনির্বাচিত সংসদ সদস্য মোছলেম উদ্দিন আহমদ। তিনি বলেন, এলাকাবাসীর দীর্ঘদিনের দুঃখ কালুরঘাটের জরাজীর্ণ সেতু। সেই সেতু অতিক্রম করতে গিয়ে অনেকের জীবন শেষ হয়ে গেছে। এই সেতুর প্রত্যাশায় মানুষ আমাকে ভোট দিয়েছে। সেতুটি করার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নিজেই ঘোষণা দিয়েছেন। ২০১০ সালে যখন তৃতীয় সেতু উদ্বোধন করা হয়েছিল তখন আমরা একটি জনসভা করেছিলাম।

সোমবার (২০ জানুয়ারি) জাতীয় সংসদে জরুরি জনগুরুত্বসম্পন্ন বিষয়ে মনোযোগ আকর্ষণের নোটিসের ওপর আলোচনায় মোছলেম এই দাবি জানান। এ জন্য তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মনোযোগ আকর্ষণ করেছেন।

বক্তব্যের শুরুতে সংসদ সদস্য মোছলেম উদ্দিন আহমদ বলেন, বাংলাদেশে যেভাবে উন্নয়ন হয়েছে, বিশেষ করে চট্টগ্রামে যে ব্যাপক কাজ হয়েছে তার প্রতিফলন, মানুষ আমাকে ভোট দিয়েছে। এজন্য বঙ্গবন্ধুকন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রতি আমি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। মানুষ যে প্রত্যাশা নিয়ে আমাকে সংসদে পাঠিয়েছে, সেই দায়িত্ব যেন আমি সূচারুরূপে পালন করতে পারি।

তিনি বলেন, চট্টগ্রাম নগরে আমার নির্বাচনি এলাকার অনেক জায়গায় নগরের সেবা, সুখ-স্বাচ্ছন্দ্য পৌঁছেনি। সেই সব এলাকার সেবা নিশ্চিত করার জন্য সিটি করপোরেশন ও মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে আমরা আরো ব্যাপক ভূমিকা প্রত্যাশা করছি।

বক্তব্যের শেষের দিকে প্রবীণ রাজনীতিক মোছলেম উদ্দিন আহমদ বলেন, বোয়ালখালীতে একটি অর্থনৈতিক অঞ্চল করার দীর্ঘদিনের আশা আমাদের। সেটা যেন আগামীতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর হাত দিয়ে বাস্তবায়িত হয়। তাহলে এলাকার বেকারদের কর্মসংস্থান হবে, আমাদের এলাকা অর্থনৈতিকভাবে আরো সমৃদ্ধ হবে।

এর আগে সোমবার বিকেলে চট্টগ্রাম-৮ আসনের নবনির্বাচিত সংসদ সদস্য মোছলেম উদ্দিন আহমদ শপথ নেন। জাতীয় সংসদ ভবনে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী তাকে শপথ বাক্য পাঠ করান।

শপথ অনুষ্ঠানে জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী, হুইপ মাহবুব আরা বেগম গিনি, হুইপ সামশুল হক চৌধুরী, হুইপ ইকবালুর রহিম, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি এ বি তাজুল ইসলাম, আবু রেজা মোহাম্মদ নেজানমুদ্দীন নদভী এমপি, ওয়াসিকা আয়শা খান, খালেদা খানম এমপি এবং চট্টগ্রাম সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন উপস্থিত ছিলেন।

জাতীয় সংসদের সিনিয়র সচিব ড. জাফর আহমেদ খান শপথ অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন। এ সময় সংসদ সদস্যের নির্বাচনী এলাকার নেতাকর্মী ও সংসদ সচিবালয়ের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

সারাদিন/২০ জানুয়ারি/ আরটিএস