আজ ১৯ বছর আগের সিপিবির সমাবেশে বোমা হামলার রায়

নিজস্ব প্রতিনিধিনিজস্ব প্রতিনিধি
প্রকাশিত: ৯:৫০ পূর্বাহ্ণ, ২০/০১/২০২০

আজ ১৯ বছর আগে রাজধানীর পল্টনে সিপিবি সমাবেশে বোমা হামলায় ৫ জনকে হত্যা মামলার রায় ঢাকার অতিরিক্ত তৃতীয় মহানগর দায়রা জজ বিচারক রবিউল আলম এ রায় ঘোষণা করবেন। ভয়াবহ সেই হামলায় জড়িত সব আসামির সর্বোচ্চ সাজা প্রত্যাশা রাষ্ট্রপক্ষের। অন্যদিকে আসামিপক্ষ বলছে, তারা প্রমাণ করেছে যে আসামিরা নির্দোষ।

এ বিষয়ে ঢাকা মহানগর পাবলিক প্রসিকিউটর আব্দুল্লাহ আবু বলেন, সিপিবির সমাবেশে বোমা হামলার মামলায় ১২ আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণ করতে আমরা সক্ষম হয়েছি। তাঁদের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড চাচ্ছি। আশা করি, আদালত সব আসামির মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দেবেন।

তবে আসামিপক্ষের আইনজীবী মাইনউদ্দিন বলেন, আসামিরা নির্দোষ। সাক্ষ্য-প্রমাণে আমরা প্রমাণ করতে সক্ষম হয়েছি যে আসামিরা নির্দোষ। আমরা আসামিদের নির্দোষ খালাস দাবি করছি।

এদিকে ২০০১ সালের ২০ জানুয়ারি রাজধানীর পল্টন ময়দানে সমাবেশের আয়োজন করে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি-সিপিবি। সেই সমাবেশে বোমা হামলা চালায় নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন হরকাতুল জিহাদ। ঘটনাস্থলেই মারা যান ৫ জন, আহত হন অনেকে। ঘটনার পর মতিঝিল থানায় মামলা করা হয়।

মামলার এক যুগ পরে ২০১৩ সালের নভেম্বরে সিআইডি হরকাতুল জিহাদ নেতা মুফতি হান্নানসহ ১৩ জনকে অভিযুক্ত করে হত্যা ও বিস্ফোরক আইনের দুই মামলায় আদালতে চার্জশিট দেয়া হয়। পরের বছরের সেপ্টেম্বরে আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন হয়। রাষ্ট্র ও আসামি পক্ষের যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষে গত ১ ডিসেম্বর, রায় ঘোষণার দিন ধার্য হয়। এ মামলার ১০৭ সাক্ষীর মধ্যে ৩৮ জন আদালতে সাক্ষ্য দিয়েছেন। আসামিদের বিরুদ্ধে সব অভিযোগ প্রমাণে সফল হয়েছেন এমন দাবি ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতের পিপি মো. আব্দুল্লাহ আবুর।

আসামিদের মধ্যে মুফতি হান্নানের ফাঁসি কার্যকর হওয়ায় ১২ আসামির বিরুদ্ধে রায় ঘোষণা করবেন আদালত। বর্তমানে ৪ আসামি কারাগারে। বাকিরা পলাতক।

‘পল্টন শহীদদের’ স্মরণে আজ সোমবার সারা দেশে সিপিবির পক্ষ থেকে কর্মসূচি নেওয়া হয়েছে। সকাল ১০টা থেকে ১১টা পর্যন্ত সিপিবির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে নির্মিত অস্থায়ী বেদিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ ও সংক্ষিপ্ত সমাবেশ হবে। সিপিবি ছাড়াও বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, ছাত্র, যুব ও সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতা এবং বিশিষ্টজন ওই কর্মসূচিতে অংশ নেবেন।