বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা নেওয়াজ আটক

নিজস্ব প্রতিবেদকনিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ৬:২৭ অপরাহ্ণ, ১৬/০১/২০২০

পুলিশ বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির যুব বিষয়ক সহ-সম্পাদক মীর নেওয়াজ আলী নেওয়াজকে আটক করেছে। বুধবার (১৫ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় লালবাগ এলাকায় ধানের শীষের প্রচারণায় তাকে আটক করা হয়।

নেওয়াজ আলীর ভাই ও বিএনপির স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক মীর সরাফত আলী সপু এ দাবি করেছেন।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের আসন্ন নির্বাচনে বিএনপি সমর্থিত মেয়র প্রার্থী ইশরাক হোসেনের নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ নেন ঢাকা কলেজের প্রাক্তন ভিপি নেওয়াজ আলী।

দিনভর রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় মেয়র প্রার্থীর সঙ্গে ধানের শীষের পক্ষে গণসংযোগ করেন তিনি। নির্বাচনী প্রচারণার বহর লালবাগ এলাকায় গেলে একপর্যায়ে সন্ধ্যা ৭টার দিকে লালবাগ কেল্লার গেটের সামনে থেকে তাকে আটক করে পুলিশ।

এদিকে মীর নেওয়াজ আলীকে আটকের ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। বুধবার রাতে এক বিবৃতিতে বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘বর্তমান অবৈধ শাসকগোষ্ঠীর এখন টিকে থাকার একমাত্র উপায় হলো বিএনপি নেতাকর্মীদের পাইকারি হারে গ্রেফতার করে কারান্তরীণ রাখা।

আর এ কারণেই তারা নির্যাতন নিপীড়নের মাধ্যমে দেশবাসীসহ বিএনপি ও বিরোধী দলীয় নেতাকর্মীদেরকে আতঙ্কিত ও ভীত-সন্ত্রস্ত করে রাখতে ভয়াবহ দুঃশাসন জারি রেখেছে’।

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, দক্ষিণ সিটির মেয়র প্রার্থী ইশরাক হোসেন, বিএনপির স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক মীর সরাফত আলী সপু জানান, ‘আসন্ন সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ধানের শীষের গণজোয়ার দেখে আওয়ামী লীগ ভীত হয়ে পড়েছে। নিজেদের ভরাডুবি হবে জেনে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ পুলিশ ও প্রশাসনকে বিএনপির বিরুদ্ধে লেলিয়ে দিয়েছে। তারা নির্বাচন বানচালের ষড়যন্ত্র করছে। কিন্তু আমরা নির্বাচনের মাঠ ছেড়ে দেবো না। সুষ্ঠু ভোটের মাধ্যমে জনগণ তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারলে আমাদের বিজয় সুনিশ্চিত’।

নেওয়াজ আলী ঢাকা দক্ষিণ সিটির ২৩ নং ওয়ার্ডে বিএনপি সমর্থিত কাউন্সিলর প্রার্থী মীর আশরাফ আলী আজমের ভাই।

সারাদিন/১৬জানুয়ারি/টিআর