লাখো মুসল্লির গোনাহ মাফের আর্জিতে শেষ হলো বিশ্ব ইজতেমা

নিজস্ব প্রতিবেদকনিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১২:৫১ অপরাহ্ণ, ১২/০১/২০২০

লাখো মুসল্লির গোনাহ মাফের আর্জিতে শেষ হলো বিশ্ব ইজতেমার আখেরি মোনাজাত। রোববার (১২ জানুয়ারি) সকাল ১১টা ৭ মিনিটে মোনাজাত শুরু করেন আলমি শুরার সদস্য ও কাকরাইলের মুরব্বি মাওলানা হাফেজ মাওলানা মো. জোবায়ের।

রোববার (১২ জানুয়ারি) সকালে টঙ্গীর ইজতেমার ময়দানে মোনাজাত শুরু হতেই নেমে আসে পুরোপুরি স্থানে নিরবতা। সৃষ্টিকর্তা আল্লাহ তায়ালার প্রশংসা, হযরত মোহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামে ওপর দরুদ পাঠের মাধ্যমে তিনি মোনাজাত শুরু করেন।

মোনাজাতে তিনি ইজতেমার কামিয়াবি, অংশগ্রহণকারীসহ সব মুসলমানের গোনাহ মাফ, দুনিয়া ও আখেরাতের কল্যাণ, বিশ্ব শান্তি, বিশ্ববাসীর সুখ-সমৃদ্ধি কামনা করছেন। এ সময় লাখো মানুষের কান্নার আওয়াজে ইজতেমার ময়দানে এক অভূতপূর্ব পরিবেশ সৃষ্টি হয়। ক্ষণে ক্ষণে ভেসে আসছে আমিন আমিন ধ্বনি।

ধারণা করা হচ্ছে, ইজতেমার আখেরি মোনাজাতে লাখ লাখ মানুষ অংশগ্রহণ করেছেন। কারণ, ইজতেমার ইতিহাসে এবার প্রথমবারের মতো, ময়দান থেকে পাঁচ কিলোমিটার দূর পর্যন্ত মাইক দেওয়া হয়েছে মুসল্লিদের ভিড়ের কারণে। বিভিন্ন বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল আখেরি মোনাজাত সরাসরি সম্প্রচার করেছে।

মানুষের অত্যধিক ভিড়ের কারণে মোবাইল নেটওয়ার্ক কাজ করছিল না। সংযোগ পেতে বিলম্ব হচ্ছে। তুরাগ পাড়ের ইজতেমায় লাখ লাখ মানুষের কান্নাজড়িত আমিন আমিন ধ্বনিতে ভিজছে পৌষের শুকনো মাটি। সবার একই প্রত্যাশা, দুনিয়া ও আখেরাতের কল্যাণ। আল্লাহ তায়ালার সন্তুষ্টি অর্জন ও গোনাহ মাফ।

ইজতেমার মুরব্বিদের সূত্রে জানা গেছে, ইজতেমায় সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব-আমিরাত, অস্ট্রেলিয়া, কানাডা, চাঁদ, ইথিওপিয়া, ফ্রান্স, জার্মানি, ভারত, পাকিস্থান, রাশিয়া, সিঙ্গাপুর, দক্ষিণ আফ্রিকা, স্পেন, সুইজারল্যান্ড, ইন্দোনেশিয়া, কাজাখস্তান, খিরগিজস্থান, মালয়েশিয়া, মরক্কো, নেপাল, কেনিয়া, কুয়েত, কাতার, বাহরাইন, জর্দান ও দুবাইসহ বিশ্বের ৬১টি দেশের প্রায় ১ হাজার ৯শ’ বিদেশি মুসল্লি অংশ নিয়েছেন।

রোববার ফজরের আগে বাদ ফজর থেকে শুরু হয় আম বয়ান। এর পর শুর হয় হেদায়াতি বয়ান। একজন মুসলমান কিভাবে জীবন পরিচালনা করবে এর দিকনির্দেশনা দেয়া হয় এই বয়ানে। এরপরই অনুষ্ঠিত হয় আখেরি মোনাজাত। ‘আমিন, আমিন’ ধ্বনিতে মুখরিত হয়ে উঠে তুরাগ নদের তীর। অশ্রুসিক্ত নয়নে আল্লাহর কাছে আত্মসমর্পণে ব্যাকুল হয়ে উঠে লাখো মুসল্লি।

প্রথম পর্বের তিন দিনব্যাপী বিশ্ব ইজতেমায় আখেরি মোনাজাতে বহির্বিশ্বের কয়েক হাজার মুসল্লিসহ ৩০ লাখের মতো ধর্মপ্রাণ মুসল্লি মোনাজাতে অংশ নিয়েছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

মুসলিম বিশ্বের এই দ্বিতীয় বৃহত্তম জমায়েতের শেষ দিনে আখেরি মোনাজাতে শামিল হতে শনিবার (১১ জানুয়ারি) থেকে ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা রাজধানী ঢাকা ছাড়াও পার্শ্ববর্তী গাজীপুর, নরসিংদী, ভৈরব, সাভার, মানিকগঞ্জ, কালিয়াকৈর, কালীগঞ্জ, শ্রীপুর, কাপাসিয়াসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে ইজতেমা ময়দানে ট্রেন, বাস, ট্রাক, মাইক্রোবাস, জিপ, কার এবং নৌকাসহ নানা ধরনের যানবাহনে ছুটে আসেন।
বিশ্বের ৬১টি দেশের মুসল্লিরা ইজতেমায় অংশ নিয়েছেন।

আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে আলমি শুরাপন্থিদের বিশ্ব ইজতেমা। পরে ১৭ জানুয়ারি থেকে শুরু হয়ে ১৯ জানুয়ারি পর্যন্ত চলবে মাওলানা সাদপন্থিদের ইজতেমা।

সারাদিন/১২জানুয়ারি/টিআর