ইরাকের মার্কিন ঘাঁটিতে হামলার পর বাড়লো তেলের দাম

আন্তর্জাতিক ডেস্কআন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ১১:৫৬ পূর্বাহ্ণ, ০৮/০১/২০২০

ইরাকের ভূখণ্ডে দুইটি মার্কিন ঘাঁটিতে ইরান মঙ্গলবার (৭ জানুয়ারি) রাতে ভয়াবহ ক্ষেপণাস্ত্র হামলা করে। এর পরেই হঠাৎ করে বিশ্ববাজারে তেলের দাম দ্রুত গতিতে বাড়তে শুরু করেছে।

এর আগে মার্কিন বিমান হামলায় ইরানের গুরুত্বপূর্ণ সামরিক নেতা কাসেম সোলেইমানি নিহত হওয়ার পরও আরো এক দফা বেড়েছিল তেলের দাম।

আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলো জানাচ্ছে, অপরিশোধিত তেলের দাম এশিয়ার বাজারে অন্তত ৪ দশমিক ৫ ভাগ বেড়ে প্রতি ব্যারেল তেল ৬৫.৬৫ ডলারে বিক্রি হচ্ছে। মধ্যপ্রাচ্যের চলমান পরিস্থিতিতে তেলের সরবরাহ মারাত্মকভাবে বিঘ্নিত হতে পারে বলে উদ্বেগ ছড়িয়ে পড়েছে। এছাড়া বিশ্ববাজারে স্বর্ণের দাম এবং জাপানি মুদ্রার দামও দ্রুতগতিতে বেড়েছে। এর আগে সোলেইমানি নিহত হওয়ার পরেই দাম শতকরা ৪ ভাগ বেড়েছিল।

মার্কিন ঘাঁটিতে ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র হামলার পর আন্তর্জাতিক বাজারে শেয়ার সূচকের মারাত্মক দরপতন ঘটেছে। জাপানের বেঞ্চমার্ক নিকির শেয়ার সূচকের পতন ঘটেছে ২২৫ পয়েন্ট যা শতকরা ২.৫ ভাগেরও বেশি। পশ্চিমা দেশগুলোতেও একই অবস্থা।

মঙ্গলবার (৭ জানুয়ারি) রাতে ইরানের বিপ্লবী গার্ড বাহিনী ইরাকের দুটি মার্কিন সামরিক ঘাঁটিতে ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালায়। সোলায়মানির দাফন অনুষ্ঠান সম্পন্ন হওয়ার মাত্র কয়েক ঘণ্টা পরই এ হামলা চালায় ইরান।

এর আগে থেকেই বিভিন্ন ইরানি নেতারা এই হত্যার প্রতিশোধ নেয়ার হুমকি দিয়ে আসছিলো। মঙ্গলবার এ সম্পর্কে টুইট করেন ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাভেদ জাফরি। সেখানে নিতে আত্মরক্ষার জন্য ইরানের যে কোনো ব্যবস্থা গ্রহণের যুক্তি তুলে ধরেন। এর জবাবে পাল্টা টুইট করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। সেখানে তিনি বলেন, ‘অল ইজ ওয়েল।’

সারাদিন/৮জানুয়ারি/টিআর