ঢাবি ছাত্রীকে ধর্ষণের প্রতিবাদে উত্তাল পুরো ক্যাম্পাস

নিজস্ব প্রতিবেদকনিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১:০৬ অপরাহ্ণ, ০৬/০১/২০২০

রাজধানীর কুর্মিটোলায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) এক ছাত্রীকে ধর্ষণের প্রতিবাদে পুরো ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছেন শিক্ষার্থীরা। ধর্ষণের খবর ছড়িয়ে পড়লে রোববার (৫ জানুয়ারি) রাতেই বিক্ষোভ শুরু হয় ক্যাম্পাসে। ধর্ষকদের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবি জানিয়েছেন তারা। আর রাত আড়াইটার দিকে মিছিল বের করে ছাত্রলীগ। সোমবার (৬ জানুয়ারি) সকাল থেকেই বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে ছাত্রলীগ, ছাত্রদল ও বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ।

সোমবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে সমাবেশ করেছে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ। সেখানে কেন্দ্রীয়, বিশ্ববিদ্যালয় ও ডাকসুতে ছাত্রলীগের প্রতিনিধিরা উপস্থিত আছেন।

ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয়, সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি সনজিত চন্দ্র দাস ও সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেনের নেতৃত্বে কয়েকশ শিক্ষার্থীর ওই মিছিল ক্যাম্পাসের গুরুত্বপূর্ণ সড়কগুলো প্রদক্ষিণ করে।

এছাড়া রোববার রাত সাড়ে ৩টায় বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেন সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের নেতাকর্মীরা। সোমবার সকালে রাজু ভাস্কর্যের সামনে প্রতিবাদ সমাবেশে ডাকসুর সমাজ সেবা সম্পাদক আখতার হোসেন বলেন, অতীতের বিভিন্ন সময়ে ধর্ষণের মতো ঘৃণ্য অপরাধে অভিযুক্তদের লঘু শাস্তির ফলে বর্তমানে দেশে এই অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। ধর্ষণের শিকার ওই শিক্ষার্থী বর্তমানে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতাল ও হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে চিকিৎসাধীন।

ওই শিক্ষার্থীর বরাত দিয়ে ঢামেক পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ বাচ্চু মিয়া জানান, রোববার (৫ জানুয়ারি) বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে শেওড়া যাওয়ার উদ্দেশ্যে ঢাবির বাসে ওঠেন ওই শিক্ষার্থী। সন্ধ্যা ৭টার দিকে কুর্মিটোলায় বাস থেকে নামার পর অজ্ঞাত ব্যক্তিরা তাকে পার্শ্ববর্তী একটি স্থানে নিয়ে যায়। সেখানে তাকে অজ্ঞান করে ধর্ষণ করা হয়। রাত ১০টার দিকে জ্ঞান ফিরলে তিনি নিজেকে নির্জন স্থানে অবিষ্কার করেন।

সহপাঠীদের খবর দিলে তারা সেখানে গিয়ে তাকে উদ্ধার করে প্রথমে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যান। পরে তাকে রোববার গভীর রাত ১টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। এদিকে এ ঘটনার খবর পেয়ে রাতেই ঢাবির প্রক্টোরিয়াল বডির কয়েকজন সদস্য ঢাকা মেডিকেলে যান।

শিক্ষার্থীরা ধর্ষকের সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত চেয়ে স্লোগান দেওয়ার পাশাপাশি বিভিন্ন প্ল্যাকার্ড প্রদর্শন করছেন। যার মধ্যে রয়েছে ‘স্বাধীন দেশে আর কত?’, ‘বিচার চাইবো একসাথে ধর্ষকের বিরুদ্ধে’, ‘ধর্ষণ করতে বর্জন ঢাবি করো গর্জন’।

অপরদিকে একই সময়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রদল প্রতিবাদ সমাবেশের আয়োজন করেছে। ধর্ষণ ও নির্যাতনে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে আয়োজিত এ সভায় ছাত্রদলের বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীরা উপস্থিত আছেন।

এদিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য (ভিসি) অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান বলেন, আমরা খুবই মর্মাহত, চরম দুঃখজনক ঘটনা এটি। হাসপাতালে তাকে সব ধরনের সহায়তা দেয়া হচ্ছে। ঢাবি কর্তৃপক্ষ তার অভিবাবক। বাবাসহ পরিবারের লোকজন তার সঙ্গে আছে। সোমবার (৬ জানুয়ারি) দুপুরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ওই ছাত্রীকে দেখতে গিয়ে সাংবাদিকদের সামনে এসব কথা বলেন ঢাবি ভিসি।

সারাদিন/৬জানুয়ারি/টিআর