বিটিআরসিকে ১৩৮ কোটি টাকা পরিশোধে রবিকে নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট

বেসরকারি মোবাইল ফোন অপারেটর রবি অজিয়াটার কাছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) পাওনা ৮৬৭ কোটি ২৩ লাখ ৯১ হাজার ৪৭৬ টাকার মধ্যে ১৩৮ কোটি টাকা পরিশোধের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

আগামী পাচঁ মাসের মধ্যে পাচঁ কিস্তিতি এ টাকা পরিশোধ করতে বলেছেন আদালত। অন্যথায় বিটিআরসি যে কোনো সিদ্ধান্ত নিতে পারবে বলে আদেশ দিয়েছেন আদালত।

রোববার (৫ জানুয়ারি) এ সংক্রান্ত আবেদনের শুনানি নিয়ে হাইকোর্টের বিচারপতি মামনুন রহমান ও বিচারপতি খিজির হায়াতের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এই আদেশ দেন।

আদালতে আজ রবির পক্ষে শুনানিতে ছিলেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী প্রবীর নিয়োগী,ব্যারিস্টার তানজীব উল আলম ও ব্যারিস্টার কাজী এরশাদুল আলম। অন্যদিকে বিটিআরসির পক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম ও ব্যারিস্টার খন্দকার রেজা-ই-রাকিব।

পরে খন্দকার রেজা-ই-রাকিব বলেন, আদালত টাকার পরিমাণ নির্ধারণের ক্ষেত্রে গ্রামীণ ফোনের মামলায় আপিল বিভাগের আদেশ অনুসারে হিসাব করে ১৩৮ কোটি টাকা পরিশোধের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

এর আগে গত ২৫ নভেম্বর রবির কাছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) পাওনা ৮৬৭ কোটি ২৩ লাখ ৯১ হাজার ৪৭৬ টাকা আদায় থেকে বিরত থাকতে অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা কেন জারি করা হবে না- তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছিলেন হাইকোর্ট। এই রুলের ধারাবাহিকতায় আজকে হাইকোর্ট এ আদেশ দেন।

এর আগে ২০১৯ সালের ৩১ জুলাই পাওনা ৮৬৭ কোটি ২৩ লাখ টাকা আদায়ে রবিকে চিঠি দেয় বিটিআরসি। পরে রবি ওই চিঠির বিষয়ে নিম্ন আদালতে টাইটেল স্যুট (স্বত্ত্ব ঘোষণার মামলা) করে। একইসঙ্গে মামলা নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত অর্থ আদায়ের ওপর অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা চেয়ে আবেদন করা হয়। কিন্তু শুনানি নিয়ে নিম্ন আদালত রবির অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞার আবেদন খারিজ করে দেন। এরপর ওই আদেশের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে আপিল করে রবি অজিয়াটা।