রাষ্ট্রায়ত্ব পাটকল শ্রমিকদের আমরণ অনশন অব্যাহত

নিজস্ব প্রতিবেদকনিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ৬:৩৩ অপরাহ্ণ, ৩০/১২/২০১৯

প্রচন্ড শীত ও কুয়াশা উপেক্ষা করে দ্বিতীয় দিনের মতো রাষ্ট্রায়ত্ব পাটকল শ্রমিকদের আমরণ অনশন চলছে। মজুরী কমিশনসহ ১১ দফা দাবি আদায়ে পুনরায় আমরণ অনশন কর্মসূচি পালন করেছে শ্রমিকরা।

রাজশাহী, নরসিংদী, খুলনা সহ সারাদেশে পাটকল শ্রমিকরা তাদের অনশন অব্যাহত রেখেছে। রোববার (২৯ ডিসেম্বর) সন্ধ্যা ৬টা থেকে বাংলাদেশ পাটকল সিবিএ-নন সিবিএ ঐক্য পরিষদ ডাকে ইউএমসি জুট মিলের শ্রমিকরা মিল গেইটের সামনে এ আমরণ অনশন কর্মসূচি পালন করেছে।

এদিকে আমাদের সংবাদদাতাদের পাঠানো খবর ও তথ্যে জানা গেছে।

রাজশাহী সংবাদদাতা: সোমবার (৩০ ডিসেম্বর) পাটকল শ্রমিকদের আন্দোলন গড়ালো দ্বিতীয় দিনে। দ্বিতীয় দিনে পাটকল শ্রমিকদের সঙ্গে সংহতি প্রকাশ করছেন বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক ও রাজশাহী সদর আসনের সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা।

তিনি বলেন, পাটকল শ্রমিকদের বেতন-ভাতা ও তাদের সুযোগ সুবিধা সরকারের স্বীকৃত চুক্তি। কিন্তু চুক্তি বাস্তবায়ন করে না। এটা অবসান করতে হবে। আগামী সাত ডিসেম্বর পার্লামেন্ট শুরু হবে। পাটকল শ্রমিকদের এই ন্যায়সঙ্গত দাবি আমরা তুলবো।

রোববার রাতভর মিলের মূল ফটকে অবস্থানের পর সোমবার সকাল থেকে তারা নানান দাবি নিয়ে আবারও বিক্ষোভ প্রদর্শন করছেন। রাজশাহী জুট মিলস সিবিএ সংগ্রাম পরিষদের সভাপতি জিল্লুর রহমান বলেন, দুই দফা বৈঠকে দাবি না মানায় আবারও আমরণ অনশন শুরু করেছি এবং যতক্ষণ পর্যন্ত দাবি না মানা হবে ততক্ষণ পর্যন্ত আমরা আমরণ অনশন চালিয়ে যাব।

সরকারি-বেসরকারি অংশীদারত্বের সিদ্ধান্ত বাতিল, কাঁচা পাট কিনতে প্রয়োজনীয় অর্থ বরাদ্দ, অবসরে যাওয়া শ্রমিকদের বকেয়া পরিশোধসহ ১১ দফা দাবিতে তারা আবারও রাজশাহী পাটকলের প্রধান ফটকে আমরণ অনশন কর্মসূচি শুরু করে।

এদিকে ১৪ ডিসেম্বর শ্রমিকরা অনশন স্থগিত করে কাজে যোগ দিয়েছিল। অনশনে ইউনাইটেড-মেঘনা-চাঁদপুর (ইউএম সি) জুট মিলের স্থায়ী ও অস্থায়ী মিলিয়ে প্রায় ৫ হাজার শ্রমিক রয়েছে। এর মধ্যে কর্মসূচি উপলক্ষে শত শত শ্রমিক এই কর্মসূচিতে অংশ নেয়।

এদিকে আমাদের নরসিংদী সংবাদদাতা জানান, নরসিংদীতে প্রচন্ড শীত ও কুয়াশা উপেক্ষা করে দ্বিতীয় দিনের মতো চলছে শ্রমিকদের আমরণ অনশন। মজুরী কমিশনসহ ১১ দফা দাবি আদায়ে পুনরায় আমরণ অনশন কর্মসূচি পালন করেছে শ্রমিকরা।

রোববার সন্ধ্যা ৬টা থেকে বাংলাদেশ পাটকল সিবিএ-নন সিবিএ ঐক্য পরিষদ ডাকে ইউএমসি জুট মিলের শ্রমিকরা মিল গেইটের সামনে এ আমরণ অনশন কর্মসূচি পালন করেছে। অনশনে ইউনাইটেড-মেঘনা-চাঁদপুর (ইউএম সি) জুট মিলের স্থায়ী ও অস্থায়ী মিলিয়ে প্রায় ৫ হাজার শ্রমিক রয়েছে। এর মধ্যে কর্মসূচি উপলক্ষে শত শত শ্রমিক এই কর্মসূচিতে অংশ নেয়।

অন্যদিকে খুলনা সংবাদদাতা জানান, খুলনায় পাটখাতে প্রয়োজনী অর্থবরাদ্দ, বকেয়া মজুরী ও বেতন পরিশোধ সহ ১১ দফা বাস্তবায়নের দাবীতে খুলনা-যশোর অঞ্চলের ৯ রাষ্ট্রায়ত্ত্ব পাটকলে বিক্ষোভ ও প্রতিকী অনশন কর্মসূচী পালন করেছে শ্রমিকরা। রাষ্ট্রায়ত্ব পাটকল সিবিএ- নন সিবিএ সংগ্রম পরিষদের ডাকে ২য় পর্যায়ে কর্মসূচীর সোমবার (৩০ ডিসেম্বর) দ্বিতীয় দিনে অব্যাহত রয়েছে।

খালিশপুর, আটরা ও নওয়াপাড়া শিল্প এলাকায় রাষ্ট্রায়ত্ব পাটকলে বিক্ষোভ ও অনশন কর্মসূচী পালন করছে প্রায় অর্ধলাখ শ্রমিক-কর্মচারী। এ কর্মসূচীতে অংশ নেয়া ১৫ জন শ্রমিক অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। তারা প্লাটিনাম, ষ্টার ও ক্রিসেন্ট জুট মিলের শ্রমিক। রোববার (২৯ ডিসেম্বর) রাত সাড়ে ৯টায় অনশনে অংশ নেয়া খালিশপুর জুট মিলের পাট বিভাগের সরদার আঃ গনিকে (৫৫) খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। এছাড়াও অনশন পালনরত শতাধিক শ্রমিককে স্যালাইন দিয়ে রাখা হয়েছে।

সারাদিন/৩০ডিসেম্বর/টিআর