সর্বনিম্ন তাপমাত্রা তেঁতুলিয়ায় ৪.৫ ডিগ্রী সেলসিয়াস

পঞ্চগড় সংবাদদাতাপঞ্চগড় সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ১১:২৩ পূর্বাহ্ণ, ২৯/১২/২০১৯

দেশের উত্তর-পশ্চিমের রংপুর ও রাজশাহী বিভাগ এবং ময়মনসিংহে শীতের তীব্রতা আরও বেড়েছে। পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায় তাপমাত্রা নেমে গেছে ৪.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসে। এটি মৌসুমের সর্বনিম্ন তাপমাত্রার রেকর্ড। রোববার ভোর ৬টার দিকে এ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়। তীব্র শীতের প্রভাবে ঘর থেকে বের হওয়া কষ্টকর হয়ে পড়েছে। বেড়েছে ঠাণ্ডাজনিত রোগ।

এটি সারাদেশে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা বলে জানিয়েছেন তেঁতুলিয়া আবহাওয়া পর্যবেক্ষণাগারের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রহিদুল ইসলাম।

রহিদুল ইসলাম জানান, এটা আগের বছর এবং এবারের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা। তেঁতুলিয়ায় ২০১৮ সালে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ২ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস।
এর আগে, সকাল ৬টায় তাপমাত্র রেকর্ড করা হয় ৫ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে আরও নিচে নেমে যায়। এদিকে ভোর থেকে ঘন কুয়াশা ও তীব্র শীত হলেও বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে সূর্যের আলো দেখা গেছে।

কয়েকদিন ধরে দেশের উত্তরাঞ্চলীয় জেলা পঞ্চগড় ও ঠাকুরগাঁয়ে হাড়-কাঁপানো শীতে চরম দুর্ভোগে পড়েছেন নিম্ন-আয়ের খেটে খাওয়া মানুষ।

শীতে জেলার ছিন্নমূল এবং শ্রমিকরা বিপাকে পড়েছে। খড়কুটো জ্বালিয়ে শীত নিবারণ করছে তারা। তীব্র শীতে উপার্জন কমে গেছে দিন এনে দিন খাওয়া মানুষের। সকালে কাজের সন্ধানে বের হয়েও কাজ না পাওয়ায় বসে অলস সময় পার করছেন অনেকে।

আর শীতের কারণে ডায়রিয়া, নিউমোনিয়া, সর্দিজ্বরসহ নানা রোগে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছে শিশু ও বৃদ্ধ।

সারাদিন/২৯ডিসেম্বর/টিআর