সংখ্যালঘু গৃহবধূকে প্রকাশ্য দিবালোকে কুপিয়ে জখম

বানারীপাড়া প্রতিনিধি:বানারীপাড়া প্রতিনিধি:
প্রকাশিত: ৮:২১ অপরাহ্ণ, ০৭/১১/২০২০

বানারীপাড়া উদয়কাঠীতে সুপারি পাড়াকে কেন্দ্র করে এক গৃহবধূকে টেঠা দিয়ে কুপিয়ে যখম করা সহ ঐ তরুণীর বাবা ও ভাইকে আহত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ইউনিয়নের মধ্যম তেতলা গ্রামের সমদ্দার বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

অভিযোগে আহত সুখরঞ্জন সমদ্দার জানায়,‘আজ শনিবার (৭ নভেম্বর) সকাল ১০ দিকে আমার ছেলে সুমন আমার জমির সুপারি গাছ হতে সুপারি পারতে গেলে প্রতিপক্ষ মজিদ’র এর ছেলে মাহবুব সুপারি পারতে বাধা দিলে আমার ভাই সইলেন মাহবুবকে বলে এ জায়গা তো আমাদের, আপনারা বাধা দেন কেন, এর মধ্যেই মাহবুবের ছেলে সামীম আমার ছেলেকে মারতে উদ্ধত হয়। মাহবুব ও তার ছেলে আমার ভাই ও ছেলের উপর চড়াও হলে আমার ছেলে ওখান থেকে চলে আসে এবং আমার ভাই এটা নিয়ে আমরা বসে সমাধান করবো বলে চলে আসে। এরপর দুপুর ৩ টার দিকে মজিদের ৫ ছেলে মাহবুব আলম, ইলিয়াস, জাহিদ, আসলাম ও মাহবুব আলম’র ছেলে সুমন একত্রিত হয়ে একটা দা, চাকু ও কোদাল নিয়ে আমার বাড়িতে হামলা চালিয়ে বাড়ি ঘর ভাংচুর করে, আমার ছেলে একটা হওয়ায় তারা আমার ছেলেকে হত্যার উদ্দেশ্যে আমার ঘরের পাশে রাখা টেঠা দিয়ে আঘাত করতে গেলে আমার ছেলে ঘরে ঠুকে দরজা বন্ধ করে রাখে। আমার ছেলেকে না পেয়ে আমার বিবাহিত মেয়ে মাধুরী বিশ্বাসের কোলে রাখা ৩ বছর ও ১৮ মাসের সন্তানকে ছুড়ে ফেলে দেয়’।

আমার মেয়েকে টেঠা দিয়ে কুপিয়ে রক্ষাক্ত করে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আমাকে ও চাকু দিয়ে কুপিয়ে রক্তাক্ত করে। তারা এর পূর্বেও আমাদের উপর তারা অনেকবার হামলা করে। আমার চাচা চাচাতো ভাইদের হুমকি দামকি দিয়ে, ভয় দেখিয়ে দেশ ছাড়তে বাধ্য করেছে।

অভিযুক্ত মাহবুবের হোসেন’র ফোন বন্ধ থাকায় তার বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

সারাদিন/৭নভেম্বর/ আরএসটি

Nagad