এক জানুয়ারি থেকে এক অংকের সুদ কার্যকর

নিজস্ব প্রতিনিধিনিজস্ব প্রতিনিধি
প্রকাশিত: ২:১৮ অপরাহ্ণ, ২৫/১২/২০১৯

বাংলাদেশ ব্যাংক সব কিছুর অবসান ঘটিয়ে উৎপাদনশীল খাতে ব্যাংক ঋণের সুদহার ‘এক অংক’ অনুমোদন করেছে। ২০২০ সালের ১ জানুয়ারি থেকে শিল্পখাতের মেয়াদী ও তলবী ঋণের গ্রাহকরা এই সুবিধা পাবেন। তবে তা প্রজ্ঞাপন আকারে জারি করবে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। মঙ্গলবার (২৪ ডিসেম্বর) বাংলাদেশ ব্যাংকের বিশেষ পর্ষদ সভায় এক অংক সুদের হার অনুমোদন দেওয়া হয়।

বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মো. সিরাজুল ইসলাম বলেন, শিল্প খাতে এক অংকের সুদহার অনুমোদন করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। মেয়াদী ও তলবী ঋণ গ্রহীতারা এ সুবিধা পাবেন। এ বিষয়ে শিগগিরই প্রজ্ঞাপন জারি করা হবে। এটি কার্যকর হবে ১ জানুয়ারি থেকে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবিরের সভাপতিত্বে সভায় উপস্থিত ছিলেন অর্থসচিব আব্দুর রউফ তালুকদার, জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া, বাংলাদেশ ব্যাংকের পরিচালক ও অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সিনিয়র সচিব মো. আসাদুল ইসলাম, ডেপুটি গভর্নর এসএম মনিরুজ্জামান, সাবেক সচিব মাহবুব আহমেদ, এ কে এম আফতাব উল ইসলাম এফসিএ ও কোম্পানি সচিব কাজী ছাইদুর রহমান।

জানা গেছে, উল্লেখিত সুযোগ-সুবিধাসহ বেশ কিছু সুপারিশ চূড়ান্ত করেছে এ বিষয়ে গঠিত কমিটি। সুদহার কমানোর সুপারিশ সম্বলিত কমিটির চূড়ান্ত প্রতিবেদন গত ১২ ডিসেম্বর অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের কাছে জমা দেওয়া হয়। পরে বাংলাদেশ ব্যাংককে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দেন তিনি।

এর আগে, গত ১ ডিসেম্বর রাতে ডেপুটি গভর্নর এস এম মনিরুজ্জামানকে প্রধান করে সাত সদস্য বিশিষ্ট একটি কমিটি গঠন করে বাংলাদেশ ব্যাংক।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কমিটির এক সদস্য বলেন, সুদহার কমানোর সুপারিশ চূড়ান্ত করে যথাযথ জায়গায় জমা দেওয়া হয়েছে। সুপারিশের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে- সরকারি আমানতের ৫০ শতাংশ বেসরকারি ব্যাংকে বাধ্যতামূলক রাখা এবং তা হবে শূন্য শতাংশ সুদে।

চূড়ান্ত সেই সুপারিশ মঙ্গলবার বাংলাদেশ ব্যাংকের বোর্ড অনুমোদন করেছে। সেটি এখন প্রজ্ঞাপন আকারে জারি করা হবে।

সারাদিন/২৫ডিসেম্বর/টি