বিক্ষোভকারীদের ফাঁসাতে এবার হাসপাতালে তাণ্ডব ভারতীয় পুলিশের!

আন্তর্জাতিক ডেস্কআন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ৪:৪৯ অপরাহ্ণ, ২০/১২/২০১৯

ভারতে বিতর্কিত ধর্মভিত্তিক নাগরিকত্ব আইন বাতিলের প্রতিবাদে বিক্ষোভরত আন্দোলনকারীদের ওপর দোষ চাপাতে এবার হাসপাতালে তাণ্ডব চালিয়েছে পুলিশ বাহিনী। হাসপাতালে হামলা চালানোর একটি ভিডিও এরই মধ্যে স্যোশাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে।

এর আগে আন্দোলনকারীদের ফাঁসাতে গাড়িতে পুলিশের আগুন দেয়ার একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছিল। শুক্রবার (২০ডিসেম্বর) আনন্দবাজার পত্রিকার এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, নাগরিকত্ব আইন বাতিলের প্রতিবাদ-বিক্ষোভে বৃহস্পতিবার (১৯ ডিসেম্বর) সকাল থেকেই উত্তাল ছিল কর্নাটকের বেঙ্গালুরু।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসতে পুলিশের গুলিতে প্রাণ হারিয়েছেন দুজন। পুলিশ এই গুলি চালনার কথা স্বীকার না করলেও বিক্ষোভকারীদের হঠাতে হাসপাতালের ভেতর পুলিশি তাণ্ডবের ভিডিও সামনে এসেছে। তার পরই বিষয়টি নিয়ে ক্ষোভ উগরে ভারতীয় নাগরিকরা।

বৃহস্পতিবার (১৯ ডিসেম্বর) বেঙ্গালুরু শহরের বিভিন্ন প্রান্তে জড়ো হতে শুরু করেন সাধারণ মানুষ। চলতে থাকে স্লোগান-মিছিল। বেলা গড়াতেই সেই বিক্ষোভ উত্তাল হয়ে ওঠে। সন্ধ্যা পর্যন্তও সেই উত্তাল পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে না আসায় পুলিশ গুলি চালায়।

তাতে আহত হন জালিল কুদ্রোলি (৪৯) ও নৌশিন বেঙ্গে (২৩)। গুলিতে আহত হওয়ার পর বিকাল ৫টা নাগাদ তাদের নিয়ে যাওয়া হয় হাসপাতালে।

এই খবর ছড়িয়ে পড়তেই বিক্ষোভকারীদের একটা অংশ জড়ো হয় হাসপাতালের সামনে। সেখানে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন বিক্ষোভকারীরা।

সে সময় বিক্ষোভকারীদের হঠাতে লাঠি চার্জ করে পুলিশ। তা থেকে বাঁচতে অনেক বিক্ষোভকারী ঢুকে পড়েন হাসপাতালে।

তাদের ছত্রভঙ্গ করতে হাসপাতালের পার্কিং এলাকা ও প্রবেশ পথের লবি, এই দুই জায়গায় পুলিশ দুটি টিয়ার গ্যাস নিক্ষেপ করে বলে হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে।

তারপরই বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি তৈরি হয় সেখানে। রোগীর আত্মীয়দের পাশাপাশি বিক্ষোভকারীরা ঢুকে পড়েন হাসপাতালের বিভিন্ন জায়গায়। হাসপাতালের সিসিটিভি ফুটেজে দেখা গেছে, গ্যাস থেকে বাঁচতে হাসপাতালের ভেতর মুখে কাপড় জড়িয়ে দৌড়াচ্ছেন অনেকে।এরপর হাসপাতালের লবিতে লাঠি উঁচিয়ে তেড়ে যাচ্ছে পুলিশ।

পুলিশ কর্মীদের একটা দলকে আইসিইউ’র দরজাতে লাথি চালাতেও দেখা যাচ্ছে সেই ভিডিওতে।

হাসপাতালের অপর একটি সিসিটিভি ফুটেজের ভিডিওতে দেখা গেছে, বিক্ষোভকারীদের হাসপাতালের ভেতরে খুঁজছে পুলিশ। সেখানে গিয়ে একটি ওয়ার্ডের বন্ধ দরজায় লাথি মেরে, লাঠি চালিয়ে দরজা খোলার চেষ্টা করছে।

হাসপাতালের একটি সূত্রের বরাতে প্রতিবেদনে বলা হয়, বিক্ষোভকারী ভেবে রোগীর আত্মীয়দের ওপরও লাঠি চালিয়েছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (১৯ ডিসেম্বর) গুলিতে আহত দুই বিক্ষোভকারীর মৃত্যু হয়েছে। হাসপাতালের ভেতর পুলিশি তাণ্ডবের ব্যাপারে বেঙ্গালুরুর পুলিশ কমিশনার জানিয়েছেন, এটা ছোট ঘটনা। বিক্ষোভকারীদের হঠাতে পুলিশ লাঠি চার্জ করেছে। স্থানীয় পুলিশ স্টেশনের এক সিনিয়র অফিসার ঘটনার তদন্ত করছেন বলেও জানিয়েছেন তিনি।

সারাদিন/২০ডিসেম্বর/টিআর