আইপিএলে ফুচকা বিক্রেতা ক্রিকেটারের দাম আড়াই কোটি !

খেলাধুলা ডেস্কখেলাধুলা ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২:৫৪ অপরাহ্ণ, ২০/১২/২০১৯

নাটক বা সিনেমা নয়। এটি একটা বাস্তবতা। আর সেই বাস্তবতা হল, দুই বছর আগে একটি ছেলে ফুচকা বিক্রি করতো। লাখ টাকা দূরের কথা সে দিন আনে দিন খায়। তবে সে ক্রিকেটকে ভালোবেসে। আর ক্রিকেট নিয়েই তার স্বপ্ন দেখা। সেই ছেলেটির নাম যশস্বী জয়সওয়াল। তবে সে এখন কিন্তু কোটিপতি!

কলকাতায় বৃহস্পতিবার (১৯ ডিসেম্বর) আইপিএল’র ত্রয়োদশ আসরের নিলামে তরুণ এই ভারতীয় ক্রিকেটারকে ২ কোটি ৪০ লাখ রুপিতে দলে টেনেছে রাজস্থান রয়্যালস। আর এতে যশস্বী আইপিএলে দল পাওয়ায় উচ্ছ্বসিত। আর তাকে নিয়েছে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের অন্যতম মালিক প্রীতি জিন্তা।

এ নিয়ে টুইটে বলিউড এই অভিনেত্রী লিখেছেন, “দুইবছর আগে বাঁচার তাগিদে তাকে ফুচকা বিক্রি করতে হয়েছে। প্রতিশ্রুতি মান এই ক্রিকেটার বিক্রি হয়েছে ২ দশমিক ৪০ কোটি রুপিতে। আইপিএল এমন এক মঞ্চ, যেখানে স্বপ্ন সত্যি হতে পারে!”

উত্তর প্রদেশের ভারোহিতে জন্ম যশস্বী জয়সওয়ালের। বাবার একটা ছোট্ট দোকান ছিল। কিন্তু ছোট থেকেই স্বপ্ন দেখতেন ক্রিকেটার হবেন। সেই স্বপ্ন সত্যি করার জন্য মাঠে রাত কাটিয়েছেন। বিক্রি করেছেন ফুচকা। আইপিএলের এবারের নিলামে সেই যশস্বীই হয়ে গেলেন কোটিপতি!

ছোটবেলাতেই ক্রিকেটার হওয়ার স্বপ্ন নিয়ে মুম্বাইয়ে পাড়ি দেন যশস্বী। থাকার জায়গা ছিল না। আজাদ ময়দানে মুসলিম ইউনাইটেড ক্লাবের মাঠকর্মীদের সঙ্গে তাঁবুতেই থাকতেন। শুতে হত মাটিতে। তাতে অবশ্য কোনো দুঃখ ছিল না।

কিন্তু এই সুখও বেশিদিন সয়নি। মাঠকর্মীদের কোনোভাবে সাহায্য করতে পারেন না বলে সেখান থেকে তাকে বের করে দেওয়া হয়। অগত্যা কাঙ্ক্ষিত স্বপ্ন ছুঁতে নির্দ্বিধায় ফুচকা বিক্রি শুরু করেন।

যশস্বীর বলেন, দিনের বেলা খেলতাম। সন্ধ্যেবেলা ফুচকা বিক্রি করতাম। মোটামুটি চলে যেত। রামলীলা বা কোনো মেলা হলে তো ভালোই বিক্রি হত। খালি ভগবানের কাছে চাইতাম, আমার সঙ্গে যারা খেলে, তারা যেন না আসে। বন্ধুদের ফুচকা বানিয়ে দিতে কষ্ট হত। মনে হত ওরা আমাকে গরিব ভেবে করুণা করছে।

পরিশ্রমের ফল অবশ্য পেয়েছেন যশস্বী। মাত্র ১৭ বছর ১৯২ দিন বয়সে বিজয় হাজারে ট্রফিতে ঝাড়খণ্ডের বিপক্ষে ডাবল সেঞ্চুরি করেন বাঁহাতি এই ওপেনার। ভারতীয় ক্রিকেটারদের মধ্যে সবথেকে কম বয়সে ডাবল সেঞ্চুরির রেকর্ড তার ঝুলিতে। এই একটি ইনিংসের পর তাঁকে আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। প্রচারের আলোয় চলে আসেন উদীয়মান এই ক্রিকেটার।

শচীন টেন্ডুলকার থেকে সুনীল গাভাস্কার, সবাই প্রশংসা করেছেন যশস্বীর। ভারতের অনূর্ধ্ব-১৯ দলে সুযোগ পেয়েছেন। এবারের নিলামে যে তার ভালো দাম উঠবে, ক্রিকেটমহলের অনেকেই তা আন্দাজ করেছিলেন। হলও তাই।

মাত্র ২০ লাখ টাকা বেস প্রাইস ছিল যশস্বীর। মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স, কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব, কলকাতা নাইট রাইডার্স ও রাজস্থান রয়্যালস তাকে কেনার আগ্রহ দেখিয়েছিল। শেষ পর্যন্ত রাজস্থান তাকে ২ কোটি ৪০ লক্ষ রুপিতে নিয়ে নেয়।

অজিঙ্কা রাহানে ও রাহুল ত্রিপাঠিকে এবার ছেড়ে দিয়েছে রাজস্থান রয়্যালস। যশস্বীর অন্তর্ভুক্তি হওয়ার অর্থ, ওপেনার হিসেবে তার ওপর আস্থা রাখছে ফ্র্যাঞ্চাইজিটি। শেষ মুহূর্তে বড় অঘটন না ঘটলে, আইপিএলের সব ম্যাচেই খেলার সুযোগ পাবেন এই তরুণ বাঁহাতি ব্যাটসম্যান।

সারাদিন/১৯ডিসেম্বর/টিআর