লা লিগায় বার্সা-রিয়াল খেলা গোলশূন্য ড্র

খেলাধূলা ডেস্কখেলাধূলা ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২:১২ অপরাহ্ণ, ১৯/১২/২০১৯

লা লিগায় তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ খেলা বুধবার রাতে বার্সেলোনা-রিয়ালের ম্যাচটি অমীমাংসিত হয়েছে। এই দুই দলের গোলশূন্য ড্রয়ের ঘটনা ২০০২ সালের পর এই প্রথম।

বার্সেলোনা-রিয়ালের লড়াইয়ে নানা সুযোগ আসে। তবুও দুই দলের খেলোয়াড়রা কোনো গোল দিতে পারি না। এতে অবশ্য ক্লাব রেকর্ড টানা সাত ম্যাচ ধরে অপরাজিত রইলো বার্সেলোনা। পেপ গুয়ার্দিওলার দলের রেকর্ড স্পর্শ করল এরনেস্তো ভালভেরদের দল।

খেলার ১৭ মিনিটে এগিয়েও যেতে পারতো জিদানের শিষ্যরা। শুরু থেকেই একের পর এক আক্রমণে বার্সেলোনাকে কাঁপিয়ে দেয় তারা। তবে কর্নার থেকে কাসেমিরোর হেড গোললাইন থেকে ফিরিয়ে স্বাগতিকদের ত্রাতা জেরার্দ পিকে। ফলে কোনো গোল হয়নি।

২৫তম মিনিটে আরেকটি সুযোগ আসে। বেনজেমার শট পা দিয়ে ঠেকিয়ে দেন টের স্টেগেন। এরপর কাসেমিরোর দূরপাল্লার শট ঝাঁপিয়ে ব্যর্থ করে দেন তিনি।

৩১তম মিনিটে সুযোগ পায় বার্সেলোনা। খেলার ধারার বিপরীতে থিবো কর্তোয়া ঝাঁপিয়ে একটি আক্রমণ কোনোমতে ঠেকালে বল পেয়ে যান মেসি। তার শক্তিশালী শট গোললাইনের সামনে থেকে ফিরিয়ে দেন সের্হিও রামোস।

১০ মিনিট পর মেসির জাদুতে এগিয়ে যাওয়ার সুবর্ণ সুযোগ পেয়ে যায় বার্সেলোনা। অধিনায়কের দুর্দান্ত চিপে জর্দি আলবার শট একটুর জন্য লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়।

৬০তম মিনিটে ফের সুযোগ পান মেসি। অঁতোয়ান গ্রিজমানের পাস নিয়ন্ত্রণেই নিতে না পারায় ব্যর্থ হন তিনি। এরপর দারুণ সুযোগ আসে গ্যারেথ বেলের সামনে। খুব কাছ থেকেও সঠিকভাবে লক্ষ্যভেদ করতে পারেননি ওয়েলস ফরোয়ার্ড।

এর ৪ মিনিট পর আরেকটি গোলের সুযোগ আসে। ফ্রেংকি ডি ইয়ংয়ের শট ঝাঁপিয়ে ঠেকান কর্তোয়া।

৭২তম মিনিটে দর্শকরা মনে করেছিলেন গোল হয়ে গেল বুঝি! কিন্তু না। বল ঠিকই জালে পাঠিয়েছিলেন বেল। ভিএআরের সহায়তা নিয়ে গোল দেননি রেফারি।

সে ঘটনার ২ মিনিট পর ডি-বক্সের ভেতর থেকেও সুযোগ হাতছাড়া করেন সুয়ারেস। গোল পোস্টের অনেক ওপর দিয়ে বল মেরে সুযোগ হাতছাড়া করেন তিনি।

শেষের দিকে রক্ষণাত্মক হয়ে পড়ে রিয়াল। প্রতি-আক্রমণ থেকেও পায়নি কোনো সাফল্য। তাই শেষ পর্যন্ত কোনো গোলই হয়নি খেলাটিতে। লা লিগার এবারের আসরে ১৭ ম্যাচে ৩৬ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষেই রয়েছে বার্সেলোনা। সমান পয়েন্ট নিয়ে তাদের পরেই রয়েছে রিয়াল।

সারাদিন/১৯ডিসেম্বর/টিআর