রিয়ার বিরুদ্ধে মামলা করলেন সুশান্তের বাবা

সারাদিন ডেস্কসারাদিন ডেস্ক
প্রকাশিত: ৯:২৩ অপরাহ্ণ, ২৯/০৭/২০২০

ছবি: সুশান্ত সিং ও রিয়া

ভারতের বিহারে অভিনেত্রী রিয়া চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেছেন সুশান্ত সিং রাজপুতের বাবা। তাঁর বিরুদ্ধে প্রতারণা ও আত্মহত্যায় প্ররোচনার অভিযোগ করেছে সুশান্ত সিং রাজপুতের বাবা কে কে সিং।

জানা গেছে, ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৪১, ৩৪২, ৩৮০, ৪০৬, ৫০৬ এবং ৩০৬ ধারায় দায়ের করা হয়েছে অভিযোগ। রিয়া ছাড়াও আরও পাঁচ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

পাটনা পুলিশের চার সদস্যের একটি তদন্তকারী দল মুম্বাই পৌঁছে গেছে। দলটি মুম্বাই পুলিশের কাছ থেকে কেস ডায়েরি এবং অন্যান্য আনুষঙ্গিক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য সংগ্রহ করবে।

ছয় পাতার এজাহারে সুশান্ত সিং রাজপুতের বাবা বলেছেন, রিয়া, তার পরিবার ও বন্ধুরা মিলে সুশান্তের সঙ্গে প্রতারণা করেছেন। তার অর্থ আত্মসাৎ করেছেন, তাকে চাপে রেখেছেন।

তিনি আরও বলেন, সুশান্তকে রিয়া শর্ত জুড়ে দিতেন, সিনেমা করতে হলে নায়িকা হিসেবে তাকেই রাখতে হবে। আর যদি তা না হয়, তাহলে সেই ছবি ফিরিয়ে দিতে হবে।

সুশান্তের বাবা আরও বলেন, সুশান্তকে তার বাড়ি থেকে সরিয়ে নিয়ে একটি ভুতুড়ে বাড়িতে ওঠেন রিয়া। সুশান্ত অদ্ভুত কথা বার্তা বলেন, এমন অভিযোগে সুশান্তকে মানসিক ডাক্তার দেখাতে বলেন রিয়া। সেই অজুহাতে রিয়া পরে সুশান্তকে নিয়ে মুম্বাইয়ের একটি বাড়িতে ওঠেন এবং নিজের পরিচিত এক মানসিক চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যান। এরপর চিকিৎসকের সহায়তায় সুশান্তকে ওষুধের অতিরিক্ত ডোজ দিতেন রিয়া। সুশান্ত অসুস্থ হয়ে পড়ায় রিয়া সবাইকে বলে বেড়াতেন, সুশান্তের ডেঙ্গু হয়েছে।

সুশান্তের বাবা অভিযোগে আরও জানান, রিয়া সুশান্তের বিশ্বস্ত কর্মীদেরকে সরিয়ে দিয়েছিলেন। তার বদলে নিজের পরিচিতদের সুশান্তের বাড়িতে নিয়োগ দিয়েছিলেন।

রিয়ার পরিবার সুশান্তের সব কিছু নিয়ন্ত্রণ করা শুরু করেছিল। এমনকি নিজের পরিবারের সঙ্গেও যোগাযোগ করা কমে গিয়েছিল সুশান্তের। সুশান্তকে পাটনাতে যেতে দিতেন না রিয়া।

কে কে সিং-এর অভিযোগ, রিয়া সুশান্তের ফোন নম্বর বদলে দিয়েছিলেন। নিজের কাছের বন্ধু স্যামিয়াল মিরান্ডার নামে নেয়া একটি সিম সুশান্তকে ব্যবহার করতে বাধ্য করেছিলেন রিয়া।

কে কে সিং-কে সুশান্ত বেশ কয়েকবার জানিয়েছিলেন যে তাকে কিছু মানুষ নিয়ন্ত্রণ করছে এবং তারা তাকে পাগলা গারদে পাঠিয়ে ছাড়বে।

সুশান্তের কার্ড থেকে একবছরে ১৭ কোটি টাকা খরচ করেছে রিয়া। ইউরোপ ভ্রমণ করেছে সুশান্তের পয়সাতেই। বিহার পুলিশের তদন্তকারীদের একটি দল গত দুদিন ধরে মুম্বইতেই রয়েছেন। মুম্বাই পুলিশকে না জানিয়েই বেশ কিছু জনের সঙ্গে কথা বলেছেন তাঁরা। আইনি নোটিশ গেছে রিয়ার বাড়িতেও। তদন্তে সাহায্য না করলে তাকে গ্রেফতার করে পটনা নিয়ে আসা হবে এমনটাই জানিয়েছে পুলিশ। বুধবার তাদের মুম্বই পুলিশের সঙ্গে একটি বৈঠকেরও কথা রয়েছে।

সারাদিন/২৯জুলাই/এএইচ