চকরিয়ায় বাবা ও ছেলে বাসের ধাক্কায় নিহত

কক্সবাজার সংবাদদাতাকক্সবাজার সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ৩:১৪ অপরাহ্ণ, ১৮/১২/২০১৯

কক্সবাজারের চকরিয়ায় সিএনজি অটোরিকশার আরোহী বাবা ও ছেলেকে যাত্রীবাহী সৌদিয়া বাসের ধাক্কায় নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছেন স্ত্রীসহ একই পরিবারের আরও তিনজন। আহতদের চকরিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতাল ভর্তি করা হয়েছে।

বুধবার (১৮ ডিসেম্বর) ভোর সাড়ে ৪টার দিকে কক্সবাজার-চট্টগ্রাম মহাসড়কের চকরিয়া উপজেলার খুটাখালী ইউনিয়নস্থ গর্জনতলী নতুন মসজিদ নামক এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন, চকরিয়া উপজেলার খুটাখালী ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের হেতালিয়া পাড়া এলাকার মৃত ছাবের আহমদের ছেলে সিএনজি চালক মোহাম্মদ নুরু (৩৫) ও তার ছেলে মঈনুর খান (৯)।

দুর্ঘটনায় আহতরা হলেন, সিএনজি চালক মোহাম্মদ নুরুর স্ত্রী ময়তুল জন্নাত (২৫), তার ছেলে নকিব খাঁন (৫) ও তাদের আত্মীয় নাজির হোসেনের ছেলে নুরুল আলম (২০)।

খবর পেয়ে চকরিয়া মালুমঘাট হাইওয়ে পুলিশ দুর্ঘটনায় হতাহতদের ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করেছে। আহত ব্যক্তিদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করা হয়েছে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে ডুলাহাজারাস্থ মালুমঘাট হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ (পরিদর্শক) মোর্শেদ আলম জানান, কক্সবাজার-চট্টগ্রাম মহাসড়কে চকরিয়াস্থ খুটাখালী গর্জনতলী নতুন মসজিদ এলাকায় কক্সবাজার অভিমুখী যাত্রীবাহী সৌদিয়া বাসের সঙ্গে ওই স্থানে একটি সিএনজিগাড়ি যাত্রী নামানোর জন্য অপেক্ষারত অবস্থায় ধাক্কা লাগে। এতে ঘটনাস্থলেই সিএনজি চালকসহ দুই ব্যক্তি নিহত ও তিনজন গুরুতর আহত হয়। আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করা হয়েছে।

Nagad

তিনি বলেন, নিহতদের মরদেহ উদ্ধার করে প্রাথমিক সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করা হয়েছে। নিহতের পরিবারের আবেদনের প্রেক্ষিতে তাদের মরদেহ বিনা ময়নাতদন্তে হস্তান্তর করা হয়।

দুর্ঘটনা কবলিত সৌদিয়া বাস ও সিএনজি গাড়ি ঘটনাস্থল থেকে জব্দ করে পুলিশ ফাঁড়িতে নেওয়া হয়েছে বলে তিনি জানান।

সারাদিন/১৮ডিসেম্বর/আর