বীরশ্রেষ্ঠ মোস্তফা কামালের জন্মদিনে কেক কাটলেন মা

ভোলা সংবাদদাতাভোলা সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ১১:২২ পূর্বাহ্ণ, ১৭/১২/২০১৯

বীরশ্রেষ্ঠ মো. মোস্তফা কামালের বৃদ্ধা মা মালেকা বেগম তার সন্তানের জন্মদিন পালন করেন। সোমবার (১৬ ডিসেম্বর) ভোলা সদরের আলী নগরের মৌটুপী গ্রামে মোস্তফা কামালের বাড়িতে এই আয়োজন করা হয়েছে। এছাড়া ওই এলাকায় বীরশ্রেষ্ঠ মোস্তফা কামাল মহাবিদ্যালয়ে তার জন্মদিন উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলেরও আয়োজন করে কলেজ কর্তৃপক্ষ।

সোমবার (১৬ ডিসেম্বর) ছিল মোস্তফা কামালের ৭২তম জন্মবার্ষিকী। অনুষ্ঠানে কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ও বীরশ্রেষ্ঠ মোস্তফা কামালের ভাইপো মো. সেলিমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন পশ্চিম রুহিতা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. সাইদুল হাসান সেলিম, কলেজের ইংরেজী প্রভাষক মো. মাকসুদুর রহমান তুহিন, সমাজ বিজ্ঞান প্রভাষক মোহা. মোস্তাফিজুর রহমান, সমাজকর্ম প্রভাষক মো. আল আমিন প্রমুখ।

১৯৪৭ সালের এই দিনে ভোলার দৌলতখান উপজেলার হাজীপুর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন বীরশ্রেষ্ঠ মো. মোস্তফা কামাল। তার বাবা হাবিবুর রহমান ছিলেন হাবিলদার। মা মালেকা বেগম। হাবিলদার হাবিবুর রহমানের দুই ছেলে ও তিন মেয়ের মধ্যে মোস্তফা কামাল ছিলেন সবার বড়।

১৯৭১ সালের ১৮ এপ্রিল কুমিল্লায় পাকিস্তানি বাহিনীর সঙ্গে সম্মুখযুদ্ধে তিনি শহিদ হন। মোস্তফা কামালের স্ত্রী পিয়ারা বেগম ২০০৬ সালে ও একমাত্র ছেলে মোশারেফ হোসেন বাচ্চু ১৯৯৫ সালে মারা যান। পুত্রবধূ পারভিন আক্তার মুক্তি বেঁচে থাকলেও নাতনি অনামিকা ২০০৪ সালে আগুনে পুড়ে মারা যান।

১৯৮২ সালে মেঘনা নদীর ভাঙনে দৌলতখানের বাড়িটি বিলীন হয়ে গেলে ভোলা সদরের মৌটুপী গ্রামে চলে আসেন তার পরিবারের সদস্যরা। বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ৫৫ পদাতিক ডিভিশন সেখানে ৯২ শতাংশ জমিতে এই বীরশ্রেষ্ঠের পরিবারের জন্য ‘শহীদ স্মরণিকা’ নামে একতলা একটি পাকা ভবন নির্মাণ করে দেয়।

সারাদিন/১৭ডিসেম্বর/আর

Nagad