ভারত ৫৯টি চীনা গুরুত্বপূর্ণ অ্যাপ নিষিদ্ধ করেছে

সারাদিন ডেস্কসারাদিন ডেস্ক
প্রকাশিত: ১০:৫৬ পূর্বাহ্ণ, ৩০/০৬/২০২০

ভারত ৫৯টি চীনা গুরুত্বপূর্ণ অ্যাপ নিষিদ্ধ করেছে। এর মধ্যে রয়েছে চীনা অ্যাপ নির্মাতা বাইটড্যান্সের জনপ্রিয় অ্যাপ টিকটক, আলিবাবার তৈরি ইউসি ব্রাউজার ও চীনের সবচেয়ে বড় সামাজিক যোগাযোগ নেটওয়ার্ক প্রতিষ্ঠান টেনসেন্ট এর জনপ্রিয় বার্তা আদান–প্রদানের অ্যাপ উইচ্যাট এবং শেয়ারইট।

ভারত সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, কোটি কোটি ভারতীয় মোবাইল এবং ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের স্বার্থ সুরক্ষিত করতেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এক বিবৃতি দিয়ে এসব অ্যাপের ওপর নিষেধাজ্ঞার কথা জানানো হয়।

কেন্দ্রের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, এই ৫৯টি অ্যাপ দেশের সার্বভৌমত্ব, অখণ্ডতা, দেশের সুরক্ষার জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকর! সে জন্যই এই অ্যাপগুলিকে নিষিদ্ধ করা হল।

জানানো হয়, এর আগেও একাধিক বার ভারতীয়দের ব্যক্তিগত তথ্য, সার্চ হিস্টরি ইত্যাদির উপর নজরদারি বা তথ্য হাতানোর মতো গুরুতর অভিযোগ উঠেছে একাধিক চিনা সংস্থার বিরুদ্ধে। এর মধ্যে চিনের স্মার্টফোন ও ইলেকট্রনিক সামগ্রি প্রস্তুতকারী সংস্থা শাওমি-র নামও রয়েছে।

ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ওই বিবৃতিতে বলা হচ্ছে, এই অ্যাপগুলো ভারতের সার্বভৌমত্ব ও অখণ্ডতা, প্রতিরক্ষা, রাষ্ট্রীয় সুরক্ষা এবং জনশৃঙ্খলার জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর। তাই এসব অ্যাপ দেশে নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।

এদিকে জুনের মাঝামাঝি বিতর্কিত লাদাখ সীমান্তে চীনা সেনাদের হামলায় ভারতের অন্তত ২০ জওয়ান নিহত পর দেশ দুটির মধ্যে উত্তেজনা শুরু হয়। দুই দেশের মধ্যকার সংঘর্ষের পর চীনা পণ্য বর্জনের ডাক ওঠে।

এদিকে টিকটরের ব্যবহারকারীদের তথ্যচুরির বিষয়টি ধরা পড়েছে অ্যাপেলের নতুন অপারেটিং সিস্টেম আইওএস ১৪ -এর একটি বিশেষ ফিচারে। এই ফিচারের সাহায্যে সহজেই ধরা পড়ে কোন অ্যাপ ইউজারের কোন তথ্য বা সার্চ হিস্টরি অ্যাকসেস করছে।

জানা গেছে, শুধু ভারতীয়দেরই নয়, দীর্ঘদিন ধরেই বিশ্ব জুড়ে আইফোন ব্যবহারকারীদের ব্যক্তিগত তথ্য ও কার্যকলাপের উপর নজরদারি চালাত টিকটক। এ বর ইন্দো-চিন সীমান্তে উত্তেজনার আবহেই ৫৯টি চিনা অ্যাপের বিরুদ্ধে বড়সড় পদক্ষেপ করল ভারত সরকার।

সারাদিন/৩০জুন/ আএসটি