পাটকল শ্রমিকের জানাজা সম্পন্ন অনশন চতুর্থ দিনে

মজুরি কমিশনসহ ১১ দফা দাবিতে পাটকল শ্রমিকদের আমরণ অনশন পালন করছে শ্রমিকরা। এর মধ্যেই খুলনার প্লাটিনাম জুবিলী জুট মিলের সামনে মৃত্যুবরণকারী একজন মিলের শ্রমিক আব্দুস সাত্তারের জানাজা সম্পন্ন হয়েছে। শুক্রবার (১৩ ডিসেম্বর) সকাল সাড়ে ১০টায় মিলের সামনে সম্পন্ন হয় জানাজা।

জানাজায় অনশনরত শত শত শ্রমিক, বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ অংশ নেন। পরে আব্দুস সাত্তারের কর্মস্থল প্লাটিনাম জুবিলী জুট মিলের ব্যবস্থাপনায় মরদেহ তাঁর পরিবারের মাধ্যমে পাঠানো হয়।

আব্দুস সাত্তার প্লাটিনাম জুবিলী জুট মিলের তাঁত বিভাগের কর্মী ছিলেন। প্লাটিনাম জুবিলী জুট মিলের সামনে বৃহস্পতিবার (১২ ডিসেম্বর) দুপুরে অনশন চলার সময় অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। তাঁকে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে সেখানে সন্ধ্যা পৌনে ৬টার দিকে মারা যান তিনি।

এদিকে বকেয়া মজুরি পরিশোধ, মজুরি কমিশন বাস্তবায়ন, অস্থায়ী শ্রমিকদের স্থায়ীকরণসহ ১১ দফা দাবিতে শ্রমিকদের আমরণ অনশন শুক্রবার (১৩ ডিসেম্বর) চতুর্থ দিনে পড়েছে। আন্দোলনকারী শ্রমিকদের মুহুর্মুহু স্লোগানে আজো প্রকম্পিত কর্মসূচি এলাকা।

তবে জানা গেছে, গত মঙ্গলবার (১০ ডিসেম্বর) এ কর্মসূচি শুরু হয়েছে। চট্টগ্রামে শুক্রবারও (১৩ ডিসেম্বর) আমিন জুটমিলসহ রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল শ্রমিকরা আমরণ অনশন কর্মসূচি চালিয়ে যাচ্ছেন। শ্রমিকরা রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল সিবিএ-নন সিবিএ সংগ্রাম পরিষদের নেতাদের সঙ্গে মিল গেটে অবস্থান করছেন।

খুলনার রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল সিবিএ নন-সিবিএ সংগ্রাম পরিষদের উদ্যোগে ক্রিসেন্ট, প্লাটিনাম, স্টার, ইস্টার্ন, খালিশপুর, দৌলতপুর, আলিম, যশোরের জেজেআই, কার্পেটিং মিলের হাজার হাজার শ্রমিক এ কর্মসূচিতে অংশ নিচ্ছেন। কর্মসূচি এখনো চলমান। এ ছাড়া কর্মসূচি চলছে খুলনা, যশোর, নরসিংদী, রাজশাহীসহ অন্যান্য জেলার রাষ্ট্রায়াত্ত পাটকলগুলোতে।

একইভাবে কর্মসূচি চলছে খুলনা, যশোর, নরসিংদী, রাজশাহীসহ দেশের বিভিন্ন জেলার রাষ্ট্রায়াত্ত পাটকল এলাকাগুলোতে।

সারাদিন/১৩ ডিসেম্বর/এস