বাস ভাড়া ৮০ শতাংশ বাড়ানোর সুপারিশ

নিজস্ব প্রতিবেদকনিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ৫:২১ অপরাহ্ণ, ৩০/০৫/২০২০

করোনাভাইরাসের এই সংকটময় মুহূর্তে বাসের ভাড়া ৮০ শতাংশ বাড়ানোর সুপারিশ করেছে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ)।

ঢাকা জেলার বাস, মিনিবাস, সিটিং সার্ভিসসহ, দূরপাল্লা তথা আন্তঃজেলায় চলাচলকারী সব বাসের ক্ষেত্রে এই ভাড়া বাড়ানোর সুপারিশ করেছে সরকারি সংস্থাটি।

শনিবার (৩০ মে) বিআরটিএ’র ব্যয় বিশ্লেষণ কমিটির বৈঠকে এ সুপারিশ করা হয়। বৈঠকে বিআরটিএ’র কর্মকর্তা ছাড়াও মালিক ও শ্রমিকদের প্রতিনিধি উপস্থিত ছিলেন।

বিআরটিএ চেয়ারম্যান ইউসূব আলী মোল্লা বলেন, প্রত্যেক বাসে ৫০ শতাংশ সিট খালি রাখতে হবে। সেই ক্ষেত্রে বাস মালিকরা লোকসানে পড়বে। আমরা আজকে বিআরটিএর গণপরিবহণ ভাড়া নির্ধারণ কমিটির সকলের উপস্থিতিতে ৮০ শতাংশ ভাড়া নেওয়ার জন্য সুপারিশ করেছি। অর্থাৎ ৫০ ভাগ যাত্রীর কাছ থেকে ৮০ ভাগ ভাড়া নেওয়া হবে।

ভাড়া এত বাড়ানোর ‍সুপারিশের ব্যাখ্যায় ইউসূব আলী মোল্লা বলেন, ৪০ সিটের বাসে ২০ জন যাত্রী থাকলে খালি সিটের ভাড়া যাত্রীদেরই দিতে হবে। সেই হিসেবে ভাড়া ৮০ শতাংশ করা হচ্ছে। আর এই বৃদ্ধি ভাড়া করোনাভাইরাসের পরিস্থিতি বিবেচনায় বাড়ানো হয়েছে। এটা সকল যাত্রী ও মালিকদের মেনে নিতে হবে।

বৈঠকে অংশ নেয়া বিআরটিএর এক কর্মকর্তা ও দুই পরিবহন নেতা জানান, করোনা থেকে সুরক্ষায় প্রতিটি বাসের প্রতি সারিতে একটি করে আসনে বসবেন যাত্রী। অর্থাৎ অর্ধেক সংখ্যক যাত্রী বহন করতে পারবে প্রতিটি বাস। পর্যাপ্ত সুরক্ষাসামগ্রী ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার রাখতে হবে। সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত সুপারিশ আকারে আজই মন্ত্রণালয়ে পৌঁছাবে। সেখান থেকেই আসবে চূড়ান্ত নির্দেশনা।

উল্লেখ্য, আজ শনিবার (৩০ মে) শেষ হচ্ছে করোনাভাইরাসের কারণে সরকার ঘোষিত টানা ৬৬ দিনের ছুটি। এটিই দেশের ইতিহাসের সবচেয়ে লম্বা ছুটি। এ ছুটির অবসানের ফলে ৩১ মে থেকে ১৫ জুন পর্যন্ত সরকারি নির্দেশনা সাপেক্ষে সীমিত পরিসরে সরকারি-বেসরকারি অফিস খুলছে। একইসঙ্গে স্বাস্থ্যবিধি মেনে নামছে গণপরিবহনও (বাস, লঞ্চ, ট্রেন)।

সারাদিন/৩০মে/এএইচ