পদ্মা সেতুর ৩০তম স্প্যান বসেছে, ৪৫০০ মিটার দৃশ্যমান

মুন্সিগঞ্জ প্রতিনিধি:মুন্সিগঞ্জ প্রতিনিধি:
প্রকাশিত: ৩:২৮ অপরাহ্ণ, ৩০/০৫/২০২০

ছবি: সারাদিন ডট নিউজ

করোনাভাইরাসের মধ্যে বন্ধ নেই স্বপ্নের পদ্মা সেতুর কাজ। শনিবার (৩০ মে) আবহাওয়া অনুকুলে থাকলে সেতুর জাজিরা প্রান্তের ২৬ ও ২৭ নম্বর খুঁটির ওপর স্থাপন করা হয়েছে ৩০ তম স্প্যান। স্প্যানটি বসায় পদ্মা সেতুর সাড়ে ৪৫০০ কিলোমিটার দৃশ্যমান হয়েছে। বাকি থাকবে ১১টি স্প্যানটি বসানোর কাজ।

জানা যায়, পদ্মা সেতুর ২৬ ও ২৭ নম্বর খুঁটি এলাকায় শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি ফেরি রুটের চ্যানেল ছিল। সে কারণেই এই দুটি খুঁটি নির্মাণে বিলম্ব হয়েছে। ড্রেজিং করে পাশ দিয়ে চ্যানেল করে দিয়ে খুঁটি দুটি তৈরি করা হয়।

আগামী ২০ জুন সেতুর ৩১ তম স্প্যান বসনোর সিডিউল ঘোষণা করা হয়েছে; এটি বসবে ২৫ ও ২৬ নম্বর খুঁটিতে। এই ৩০ ও ৩১ তম স্প্যান স্থাপনের মধ্য দিয়ে সেতুটি সরাসরি জাজিরা প্রান্ত থেকে মাওয়ার অংশ স্পর্শ করবে।

পদ্মা সেতুর নির্বাহী প্রকৌশলী (মূল সেতু) দেওয়ান আব্দুল কাদের জানান, ৩০তম স্প্যানটি বসানোর পর ৩১তম স্প্যান বর্ষা মৌসুমের আগেই খুঁটির ওপর বসানোর পরিকল্পনা রয়েছে। আর ৩১তম স্প্যানটি বসে গেলে জাজিরা প্রান্তের সব কয়টি স্প্যান বসানো হয়ে যাবে। শুধু মাওয়া প্রান্তে বাকি থাকবে ১০টি স্প্যান বসানোর কাজ। খুব দ্রুত তাও সম্পন্ন করা হবে।

আব্দুল কাদের আরও জানান, করোনার কারণে পদ্মা সেতুর কাজের তেমন কোনো অসুবিধা হয়নি। স্বাস্থ্যবিধি মেনে করোনার মধ্যেও পদ্মা সেতুর কাজ চলছে। করোনাকালে পুরো প্রকল্পটিই আইসোলেটেড রাখা হয়েছে। তাই এখানকার দেশি-বিদেশি কর্মীরা অনেকটাই নিরাপদ। নিরাপদ দূরত্বে অবস্থান করে কাজ করতে সমস্যা হচ্ছে না। বাইরের কাউকে এখানে এখন প্রবেশ করতে দেওয়া হচ্ছে না।

পদ্মা সেতুতে বসানোর জন্য আরও পাঁচটি স্প্যান প্রস্তুত আছে। এর মধ্যে দুটিতে রং করার কাজ চলছে। মূল সেতুর কাজ এগিয়েছে ৮৬ দশমিক ৫০ শতাংশ। আগামী বছর জুন মাসে সেতুটি যান চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়ার কথা।

সারাদিন/৩০মে/এএইচ