পাচারের সময় ৩৫ বস্তা চাল উদ্ধার

চাঁদপুর সংবাদদাতাচাঁদপুর সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ৭:১৮ অপরাহ্ণ, ১৬/০৪/২০২০

চেয়ারম্যান সাখাওয়াত হোসেন রনি পাটোয়ারীর বাড়ি থেকে পাচারকালে ৩৫ বস্তা ত্রাণের চাল উদ্ধার করা হয়েছে। আর ঘটনাটি ঘটেছে চাঁদপুর সদর উপজেলার কল্যাণপুর ইউনিয়ন এলাকায়।

বুধবার (১৫ এপ্রিল) রাতে বিক্ষুব্ধ লোকজন পাচারের সময় চাল আটক করে থানায় খবর দেয়। ঘটনার পর চেয়ারম্যান রনি গা ঢাকা দেয়।

এ ঘটনায় বিক্ষুব্ধ জনতা চেয়ারম্যানের বাড়ি ও অফিসে হামলা চালিয়েছেন। পাশাপাশি তার এক সহযোগী ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতাকেও মারধর করেছেন স্থানীয়রা।

স্থানীয়রা জানান, কল্যাণপুর ইউনিয়নের অসহায় ও দুস্থদের মধ্যে বিতরণের জন্য উপজেলা পরিষদ থেকে কয়েক টন ত্রাণের চাল বরাদ্দ দেওয়া হয়। ইউপি চেয়ারম্যান সাখাওয়াত হোসেন রনি পাটোয়ারী অসহায়দের মধ্যে কিছু বিতরণ করার পর তার বাড়িতে ৩৫ বস্তা চাল লুকিয়ে রাখেন। এক পর্যায়ে রাতের আঁধারে একটি পিকআপযোগে তা সরিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করেন। দক্ষিণ দাসাদী গ্রামের গাজীর হাট বাজারে ট্রাকভর্তি ত্রাণের চাল দেখে লোকজন তা আটকে রেখে পুলিশে খবর দেয়। এ সময় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও রনি পাটওয়ারীর সহযোগী সফিকুল ইসলাম সফুকে বিক্ষুব্ধ জনতা বেধড়ক মারধর করে।

পরে পুলিশ ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা গিয়ে উত্তেজিত জনতাকে শান্ত করেন।

দাসাদী গ্রামের বাসিন্দা ডালিম, সুমন হাওলাদার, জাকির, শাখাওয়াত, রাজন, সুমন পাটওয়ারী, জসিম খান জানান, আমরা অনেক কষ্টে আছি। আমাদের কোনও সহায়তা না দিয়ে চেয়ারম্যান রনি সরকারি চাল পাচার করেন। জেলে কার্ডের ৪০ কেজি চালের বিপরীতে দিয়েছে ২০ কেজি। এ নিয়ে প্রতিবাদ করলে আমাদের মারধর করে বিভিন্ন মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করে।

Nagad

চাঁদপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কানিজ ফাতেমা বলেন, এলাকার লোকজন বিভিন্ন অভিযোগে একাট্টা হয়ে চেয়ারম্যানের বিচার দাবি করেছেন। আত্মসাতের অভিযোগ ছাড়াও কারো কাছ থেকে টাকা ধার করেছেন- এমন অভিযোগ এসেছে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে।

সারাদিন/১৬এপ্রিল/টিআর