ভারতে আরও দুই সপ্তাহ বাড়লো লকডাউন

সারাদিন ডেস্কসারাদিন ডেস্ক
প্রকাশিত: ৫:১৫ অপরাহ্ণ, ১৪/০৪/২০২০

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে চলমান ২১ দিনের লকডাউন সীমা বেড়ে ৩ মে পর্যন্ত করেছে ভারত। একই সাথে আগামী এক সপ্তাহ লকডাউন কঠোরভাবে পালনের নির্দেশনাও দেয়া হয়েছে স্থানীয় পুলিশ প্রশাসনকে। মঙ্গলবার (১৪ এপ্রিল) ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি জাতির উদ্দেশ্যে দেয়া ভাষণে এই লকডাউনের সময় বাড়ান।

মোদি বলেন, ইতিমধ্যেই বিভিন্ন রাজ্যে নিজস্বভাবে লকডাউনের সময়সীমা বাড়িয়েছে। এমনকি রাজ্যগুলো সর্বতোভাবে চেষ্টা করছে করোনা মোকাবেলায়। কেন্দ্রীয় সরকার করোনার বিরুদ্ধে যেভাবে লড়ছে তার কিছু তথ্য তুলে ধরেন। তিনি বলেন, ইতোমধ্যেই ভারতে এক লাখেরও বেশি বেড রয়েছে, রয়েছে ৬০০ এর বেশি করোনা হাসপাতাল; কাজ করছে ২২০টি ল্যাব।

তিনি বলেন, যখন ভারতে ৫৫০ জনের শরীরে করোনাভাইরাস পাওয়া গিয়েছে ঠিক তখনই আমরা ২১ দিনের লকডাউন ঘোষণা করেছি। সময়মত ওই পদক্ষেপ না নিলে বড় ক্ষতি হয়ে যেত।

নরেন্দ্র মোদী আরও বলেন, এবার আপনাদের কাছে সাতটি অনুরোধ করবো। সেটি হচ্ছে বাড়িতে যদি প্রবীণ এবং কোনো অসুস্থ ব্যক্তি থাকে তার দিকে খেয়াল রাখুন। সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখুন। বাড়িতে তৈরি মাস্ক ব্যবহার করুন। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর জন্য ভারতের আয়ুষ মন্ত্রণালয়ের দেয়া তথ্য অনুযায়ী চলুন। এবং করোনা সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য দেয়া এবং নেয়ার জন্য সেতু নামের সরকারি অ্যাপ ইন্সটল করুন এবং অন্যকেও ইন্সটল করতে উৎসাহিত করুন। যতটা সম্ভব গরীব দুঃস্থদের পাশে দাঁড়ান; তাদের অন্য বস্ত্র অর্থ দিয়ে সাহায্য করুন। এবং কোনো প্রতিষ্ঠান মালিক এবং দোকানের মালিক যাদের সঙ্গে অনেক কর্মী কাজ করেন তাদের এই সময় ছাটাই করবেন না এবং তাদের বকেয়া মিটয়ে দিন এবং সব শেষ তিনি বলেন দেশের যারা করোনা যোদ্ধা চিকিৎসক, মেডিকেল স্টাফ, সাফাই কর্মী, পুলিশ যারা এই মুহূর্তে করোনার বিরুদ্ধে লড়ছেন তাদের সম্মান করুন।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি তার ভাষণের মধ্যভাগে বলেন এই চলমান লকডাউন এর মধ্যে আগামী এক সপ্তাহ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। ২০ এপ্রিল পর্যন্ত সরকার চূড়ান্তভাবে দেখতে চায়। তার জন্য স্থানীয় পুলিশ প্রশাসনকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। সেইমতো প্রশাসনকেও অবহিত করা হবে বলে প্রধানমন্ত্রী জাতির উদ্দেশে দেয়া ভাষণে জানান।

সারাদিন/১৪এপ্রিল/এএইচ

Nagad