সারের অপচয় হলে কঠোর ব্যবস্থা: শিল্প প্রতিমন্ত্রী

যশোর সংবাদদাতাযশোর সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ৬:১১ অপরাহ্ণ, ০৮/১২/২০১৯

শিল্প প্রতিমন্ত্রী কামাল আহমেদ মজুমদার বলেছেন, ব্যবস্থাপনার গাফেলতির কারণে সারের অপচয় হলে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। সার যথাযথভাবে সংরক্ষণে সংশ্লিষ্টদের আরও দায়িত্বশীল হতে হবে।

রোববার (৮ ডিসেম্বর) যশোরের নওয়াপাড়ায় ট্রানজিট পয়েন্টে সারের মজুদ ও সরবরাহ কার্যক্রম পরিদর্শনকালে তিনি এই কথা বলেন। এসময় বাংলাদেশ কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ কর্পোরেশন (বিসিআইসি)-এর চেয়ারম্যান হাইয়ুল কাইয়ুম উপস্থিত ছিলেন।

এসময় প্রতিমন্ত্রী বলেন, দেশের সর্বত্র সারের পর্যাপ্ত সরবরাহ নিশ্চিত করা হয়েছে। বর্তমানে নয় লাখ মেট্রিকটন ইউরিয়া সার মজুদ আছে। এছাড়া বিদেশ হতেও সার আমদানি করা হচ্ছে। পিক সিজনে প্রতিমাসে ৩ লাখ মেট্রিকটন ইউরিয়া সার প্রয়োজন। তাই দেশে কোথাও সারের কোন ঘাটতি নেই।

তিনি বলেন, কৃষকদের কাছে সময়মত সার পৌঁছে দিতে দেশের বিভিন্ন জেলায় ১৩টি বাফার গোডাউন নির্মাণ করা হচ্ছে। আরও ৩৪ টি বাফার গোডাউনের নির্মাণ প্রক্রিয়াধীন আছে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, কৃষকদের সুবিধার্থে পর্যায়ক্রমে দেশের প্রতিটি জেলায় বাফার গোডাউন নির্মাণ করা হবে।

এর আগে শিল্প প্রতিমন্ত্রী যশোরের বাহাদুরপুরে সারের বাফার গোডাউনের নির্মাণ কাজ পরিদর্শন করেন। তিনি এসময় বাফার গোডাউনের নির্মাণ কাজ দ্রুত সমাপ্ত করার নির্দেশনা প্রদান করেন।

এসময় বিসিআইসি’র চেয়ারম্যান জানান, সারের চাহিদা ক্রমশঃ বৃদ্ধি পাওয়ার প্রেক্ষাপটে এর সুষম বণ্টন নিশ্চিত করতে আগামী বছর আগস্টের মধ্যে ১৩টি এবং ২০২১ সালের মধ্যে ৩৪টি বাফার গোডাউনের নির্মাণ কাজ সমাপ্ত করা হবে।

সারাদিন/৮ডিসেম্বর/টিআর