ডাকাত রুখতে জগন্নাথপুরের দল বেঁধে পাহারা

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরের মীরপুর ইউনিয়নের শেষ সীমান্তবর্তী এলাকায় ডাকাতের আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। শনিবার (৭ ডিসেম্বর) রাত ৯টার দিকে এমন খবর এলাকা ছড়িয়ে পড়লে সর্বসাধারণ একত্র হয়ে দলবদ্ধ ভাবে গ্রামে গ্রামে পাহারা দিয়েছে। কেউ কেউ লাঠিসোটা নিয়ে পাহারা দিয়েছে।

এলাকাবাসী জানান, জগন্নাথপুর থানা পুলিশের পক্ষে থেকে রাতে জানানো হয়, সিলেটের বিশ্বনাথ এলাকা থেকে কুখ্যাত ডাকাত মক্ররমের নেতৃত্ব দল ডাকাত জগন্নাথপুরের মিরপুর ইউনিয়নে প্রবেশ করতে পারে। এজন্য সবাইকে সর্তক থাকার জন্য বলা হয়েছে। এই খবরে বিশ্বনাথের পাশের গ্রাম জগন্নাথপুোরর মিরপুর ইউনিয়নেটের লোকজনের মধ্যে ডাকাতের ভয় দেখা দেয়। এরমধ্যে বিশ্বনাথের নিকটবর্তী মিরপুরের শ্রীরামসী, লহরি, লামা টুকেরবাজারসহ ইউনিয়নের অধিকাংশ গ্রামে স্থানীয় লোকজন পাহারা বসিয়েছে।

রবিবার (৮ ডিসেম্বর) রাত ১ টায় শ্রীরামসী গ্রামের বাসিন্দা স্থানীয় ওর্য়াডের ইউপি সদস্য মাহবুব হোসেন বলেন, থানা পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়, মিরপুর ইউনিয়নে ডাকাত প্রবেশ করতে পারে। আমাদের গ্রামের পাশেই বিশ্বনাথ। তাই গ্রামের সকল প্রবেশ পথে এলাকার যুবকসহ স্থানীয়রা পাহারা দিয়ে যাচ্ছেন।

মিরপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাহবুবুল হক শেরীন বলেন, জগন্নাথপুর থানা ওসি রাত ৯টার দিকে জানান, বিশ্বনাথ এলাকা থেকে ডাকাত সর্দার মক্ররম মিরপুর ইউনিয়নে প্রবেশ করতে পারে। এই খবর পেয়ে আমাদের ইউনিয়নের প্রত্যেক ওর্য়াডের জনপ্রতিনিধি গ্রাম পুলিশসহ এলাকার লোকজন গ্রামে গ্রামে পাহারা দিচ্ছেন।

জগন্নাথপুর থানার ওসি (তদন্ত) নব গোপাল দাস খবরে সত্যতা নিশ্চিত করে বলে আমাদের কাছে তথ্য আছে বিশ্বনাথ এলাকা থেকে মিরপুর ইউনিয়নে ডাকাত দল প্রবেশ করতে পারে। সেজন্য আমরা সবাইকে সর্তক করেছে। পুলিশ পাহারাও জোরদার করা হয়েছে।

সারাদিন/৮ডিসেম্বর/আর