চীনের ল্যাবরেটরিতে মানুষ ও বানরের সংকরায়ন

সারাদিন ডেস্কসারাদিন ডেস্ক
প্রকাশিত: ১:২২ অপরাহ্ণ, ০৫/১২/২০১৯

স্পেনের বিজ্ঞানী হুয়ান কার্লোস বেলমন্টে চীনের ল্যাবরেটরিতে মানুষ এবং বানরের মধ্যে এক অভূতপূর্ব সংকরায়ন ঘটিয়েছেন। যেখান থেকে টেকসই জীবন নিয়ে প্রাণের সঞ্চার হওয়ার সম্ভাবনা ছিল। কিন্তু এই প্রক্রিয়া কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপে বন্ধ হয়ে গেছে।

মানুষ ও বানরের ভ্রূণের মধ্যে সংকর ঘটানোর জন্য, বানরের ভ্রূণকে জীনগতভাবে রূপান্তর করা হয়েছিল। অঙ্গপ্রত্যঙ্গ সৃষ্টির জন্য ভূমিকা রাখা জীনগুলোকে অকেজো করে দেয়ার মাধ্যমে তারপর তারা বানরের জীনগুলোকে মানুষের কোষের সাথে সংমিশ্রণ ঘটান।

মানুষের অঙ্গ প্রতিস্থাপনের ক্ষেত্রে যুগান্তকারী ভূমিকা রাখবে এমন সম্ভাবনা থেকে আইনি জটিলতা এড়াতে চীনে এই গবেষণা শুরু করা হয়। যদিও ওই গবেষণার ফলাফল এখনও প্রকাশ পায়নি। কিন্তু ওই ল্যাবরেটরিতে বানর ও মানুষের সফল সংকরায়ন সম্ভব হয়েছে।

১৪ দিন থাকার পর ওই বানর-মানুষের ভ্রূণ বিলুপ্ত করে দেওয়া হয়েছে। যদিও তখনো ওই ভ্রূণটির কেন্দ্রীয় স্নায়ু ব্যবস্থা তৈরি হয়নি।

এর আগেও, ২০১৭ সালে ওই বিজ্ঞানী হুয়ান কার্লোস বেলমন্টে মানুষ ও শূকরের মধ্যে সংকরায়ন ঘটিয়ে আলোচনায় এসেছিলেন।

সারাদিন/৫ডিসেম্বর/আর