বিশ্বকাপ ক্রিকেটে ভারতের নেতৃত্বে দুধ বিক্রেতার সন্তান

নিউজ ডেস্কনিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ১১:৪৯ পূর্বাহ্ণ, ০৪/১২/২০১৯

আগামী বছরে দক্ষিণ আফ্রিকায় ১৩ তম অনুর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। ১৬ দেশের অংশগ্রহণে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ভারতের হয়ে নেতৃত্ব দিবেন ১৯ বছর বয়সী প্রিয়ম গর্গ। একজন সাধারণ দুধ বিক্রেতার সন্তান হয়ে পৃথিবীর সব থেকে ধনী ক্রিকেট দলের নেতৃত্ব দিতে যাওয়া প্রিয়মের পথ চলাটা অন্য ১০ জনের থেকে ভিন্ন।

২০০০ সালে মোহাম্মদ কাইফ, ২০০৮ সালে বিরাট কোহলি এবং ২০১৮ সালে পৃথিবী শ’এর উত্তরসূরী হতে যাওয়া প্রিয়ম গর্গ এই দীর্ঘ পথ পাড়ি দিয়েছেন নিজেকে প্রমাণ করে। অনুর্ধ্ব-১৯ দলের নেতৃত্বভার পাওয়া এই ক্রিকেটারের লক্ষ্য জাতীয় দলের জার্সি গায়ে চাপিয়ে বাবার স্বপ্ন পূরণ করা।

জানা গেছে, মাত্র ১১ বছর বয়সে প্রিয়মের মা মারা যায়। এরপর তিনি বেড়ে ওঠেন বাবা আর বোনের সাহচর্যে। ছোট থেকেই খেলার মাঠ দাপিয়ে বেড়াতেন প্রিয়ম। ছেলের খেলার খরচ জোগাতে তার বাবা নরেশ গর্গ বাড়ি বাড়ি গিয়ে দুধ বিক্রি করতেন।

বাড়ি বাড়ি দুধ বিক্রি করে নরেশ গর্গ প্রতিরাতে ১০ টাকার একটা করে নোট দিতেন প্রিয়মকে। কঠিন সময়ের বর্ণনায় প্রিয়ম বলেন, বেশিরভাগ কঠিন পরিশ্রম আমার বাবাই করেছেন। দুধ পৌঁছানো থেকে স্কুল ভ্যান চালানো, ভারী মালপত্র তোলা সবকিছুই আমার জন্য করেছেন বাবা। তিনি চাইতেন যে আমি যেন ভালো জায়গায় ট্রেনিংয়ের সুযোগ পাই। একজন ক্রিকেটার হিসেবেই আমাকে দেখতে চেয়েছিলেন বাবা।

এরই মধ্যে তিনি প্রথম সারির ক্রিকেটে একটি ডাবল সেঞ্চুরি করে ফেলেছেন। রঞ্জিতে খেলেছেন উত্তর প্রদেশের হয়ে। এবার অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে ভারতীয় দলকে নেতৃত্ব দেবেন প্রিয়ম গর্গ। বাবার স্বপ্ন পূরণের পথে এভাবেই এগিয়ে যাচ্ছেন প্রিয়ম।

প্রিয়মের বাবা নরেশ বলেন, প্রতিদিন সকালে ওকে (প্রিয়মকে) মাঠে নিয়ে যেতে হতো বলে আমাকে দুধের ব্যবসা বন্ধ করতে হয়। তখনই আমি স্কুল ভ্যান চালানো শুরু করি এবং খবরের কাগজ বিলি শুরু করি। প্রত্যেক দিন রাতে আমি প্রিয়মকে আমার সঙ্গে ভ্যানে তুলে নিতাম। রাতে গাড়িতেই তাকে খাবার খেয়ে খবরের কাগজ তুলতে যেতাম।

Nagad

তিনি আরো বলেন, এরপর শহরের বিভিন্ন জায়গায় খবরের কাগজের জোগান দিতাম যাতে সকালে ওকে মাঠে নিয়ে যেতে পারি। আমি এত পড়াশোনা শিখিনি। ক্রিকেট কি সেটা এত বুঝতাম না। কিন্তু একদিন রাহুল দ্রাবিড়ের সঙ্গে আমার দেখা হয়। তিনি বলেন, চিন্তা করবেন না। আপনার ছেলে সুযোগ পাবে। আমি তখন খুব খুশি হয়েছিলাম।

এবারের রঞ্জি ট্রফিতে উত্তর প্রদেশের হয়ে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান তুলেছেন প্রিয়ম। প্রায় গড় প্রতি ৬৮ করে ব্যাট হাতে ৮১৪ রান করেছেন। এছাড়া লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটে মাত্র ১৯ বছর বয়সেই করেছেন ২০০! আগামী ১৭ জানুয়ারি থেকে শুরু হবে তরুণদের বিশ্বকাপ। এই টুর্নামেন্টের জন্য এখনো দল ঘোষণা করেনি বাংলাদেশ।

সারাদিন/৪ডিসেম্বর/টিআর