মরণঘাতী করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২৭৫২, আক্রান্ত ৮০ হাজারের উপরে

সারাদিন ডেস্কসারাদিন ডেস্ক
প্রকাশিত: ৩:৩২ অপরাহ্ণ, ২৬/০২/২০২০

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে মঙ্গলবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) মধ্যরাত পর্যন্ত চীনে আরও ৫২ জনের মৃত্যু হয়েছে। নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৪০৬ জন। সবমিলে মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২৭৫২। এছাড়া এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে ৮০ হাজার ৪০৬ জন।

এখন পর্যন্ত ৪৩টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে প্রাণঘাতী করোনা। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২৭ হাজার ৪৭৬ জন।

চীনের জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশনের তথ্য ও বিবিসির মতে, মহামারি আকার ধারণ করা ভাইরাসটিতে চীনে সব মিলিয়ে মারা গেছে ২ হাজার ৭৫২ জন। এছাড়া চীনের বাইরে দক্ষিণ কোরিয়া, ইতালি, ইরান ও জাপানে প্রাণঘাতী করোনায় মৃত্যু হয়েছে আরও ৩৫ জনের।

ভাইরাসটির থাবায় মঙ্গলবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) পর্যন্ত দুই নারীসহ চার জনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া ইতালিতে এখন পর্যন্ত ১১ জনের মৃত্যু হয়েছে। আক্রান্ত হয়েছেন ৩২২ জন।

অপরদিকে দক্ষিণ কোরিয়ায় নতুন করে আরও ৬০ জনের এই ভাইরাসে আক্রান্তের খবর পাওয়া গেছে। এখন পর্যন্ত সেখানে ৮৯৩ জন এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে এবং মারা গেছে ৮ জন।

এদিকে, ইরানের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানায়, করোনা সংক্রমিত হয়ে এখন পর্যন্ত ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া প্রাণঘাতী এই ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা এখন ৪৭ জন। তবে মার্কিন সংবাদ সংস্থা এপি ও দৈনিক ওয়াশিংটন পোস্ট এবং কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আলজাজিরা বলছে ইরানে মৃতের সংখ্যা আরও বেশি, সেই সংখ্যা অর্ধশত ছাড়িয়ে যেতে পারে।

জাপানি প্রমোদতরী ডায়মন্ড প্রিন্সেসের আরও এক যাত্রীর মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে ওই প্রমোদতরীর চারজন প্রাণ হারিয়েছে। গত ৪ ফেব্রুয়ারি থেকে ওই প্রমোদতরীর যাত্রীদের কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছিল।

গত ৩১ ডিসেম্বর হুবেই প্রদেশের উহান শহরেই প্রথম এই ভাইরাসের উপস্থিতি ধরা পড়ে। এখন পর্যন্ত এটি বিশ্বের অন্তত ৩৩টির বেশি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে। চীনের হুবেই প্রদেশের উহানের একটি সামুদ্রিক খাবারের বাজার থেকে এই ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব শুরু। অনেক দেশই তাদের নাগরিকদের চীন ভ্রমণের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে।

এ পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়ায়, বেলজিয়াম, কম্বোডিয়া, কানাডা, ফিনল্যান্ড, ফ্রান্স, জার্মানি, হংকং, ভারত, ইতালি, জাপান, ম্যাকাও, মালয়েশিয়া, নেপাল, রাশিয়া, সিঙ্গাপুর, দক্ষিণ কোরিয়া, স্পেন, শ্রীলঙ্কা, সুইডেন, তাইওয়ান, থাইল্যান্ড, ফিলিপাইন, আরব আমিরাত, যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র, ইরান এবং ভিয়েতনামে এই ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ‘কোভিড-১৯ দিনে দিনে আক্রমণাত্মক হয়ে উঠছে। মানুষ থেকে মানুষে ছড়িয়ে পড়ছে দ্রুত। কিছু রোগীর কোনো লক্ষণ দেখা যাচ্ছে না, তাদের মাধ্যমেও ছড়িয়ে পড়ছে।’ এই রোগের কোনো প্রতিষেধক এবং ভ্যাকসিন নেই। মৃতদের অধিকাংশই বয়স্ক যাদের আগে থেকেই শ্বাস-প্রশ্বাসজনিত জটিলতা ছিল।

সারাদিন/২৬ফেব্রুয়ারি/টিআর