এআইইউবিতে ‘কেস রাইটিং ও অ্যানালাইসিস’ শীৰ্ষক সেমিনার

নিজস্ব প্রতিবেদকনিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ৬:৩৩ অপরাহ্ণ, ২৪/০২/২০২০

আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি-বাংলাদেশের (এআইইউবি) বিজনেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন অনুষদে (এফবিএ) কেস রাইটিং এবং অ্যানালাইসিস শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে। এটি বিজনেস সেমিনার সিরিজের অংশ হিসাবে আয়োজন করা হয়। রোববার (২৩ ফেব্রুয়ারি) বিকাল সাড়ে তিনটায় বিশ্ববিদ্যালয়ের মাল্টি-পারপাস হলে এটি অনুষ্ঠিত হয়। চলে বিকাল সাড়ে ৫টা পর্যন্ত।

সেমিনারের প্রতিপাদ্য বিষয় ছিল, ‘যখন পরিস্থিতি প্রতিযোগিতামূলক সুবিধা তৈরি করে’। সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আইপিই গ্লোবাল লিমিটেডের কান্ট্রি হেড-বাংলাদেশ ও এআইএম’র (ফিলিপাইনস) প্রাক্তন বাংলাদেশী ছাত্রদের অ্যাসোসিয়েশন প্রেসিডেন্ট আনোয়ার হোসেন চৌধুরী। সেমিনারের সভাপতিত্ব করেন এআইইউবি বিজনেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন অনুষদের এমবিএ প্রোগ্রামের পরিচালক অধ্যাপক ড. নিসার আহমেদ।

বিশেষ অতিথি হিসেবে সেমিনারে উপস্থিত ছিলেন ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. চার্লস ক্যারিলো ভিলানুয়েভা এবং কলা ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. তাজুল ইসলাম। প্যানেল আলোচক হিসেবে সেমিনারের বক্তব্য রাখেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের লোক প্রশাসন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ও চেয়ারপারসন ড. জেবুন্নেসা, টেকসই সামাজিক ও প্রযুক্তি উন্নয়ন কেন্দ্রের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং পরিকল্পনা কমিশন, জিওবি-র একটি একনেক প্রকল্পের টিম লিডার ড. মোজাফফর আহমেদ এবং মূল বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন এআইইউবির সহযোগী অধ্যাপক (ব্যবস্থাপনা ও মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনা) ড. মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম তালুকদার।

সেমিনারে মূল বক্তব্যটি কেস রিসার্চ পদ্ধতিটি বিশ্লেষণ করে, এবং ব্যবসায় স্টাডি একাডেমিক ফিল্ডে কেস রাইটিং এবং বিশ্লেষণের দক্ষতার উপর আলোকপাত করে। তাৎপর্যপূণভাবে এটি এর শিরোনাম বিষয়টি – যখন কেস প্রতিযোগিতামূলক সুবিধা তৈরি করে – বিস্তারিতভাবে আলোচনা করে, যা সামাজিক বিজ্ঞান এবং ব্যবসায় উভয় স্টাডিজকেই অন্তর্ভুক্ত করে। এটি একটি বিষয়ভিত্তিক বা ধারণাগত মৌলিক প্রবন্ধ ।

এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজনেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন অনুষদ এবং কলা ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদ সদস্যগণ এবং শিক্ষার্থীরা, এআইএম (ফিলিপাইনস) এর প্রাক্তন বাংলাদেশী শিক্ষার্থীরা, সহ বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মকর্তা বৃন্দ উপস্থিত ছিলেন ।

সারাদিন/২৪ফেব্রুয়ারি/টিআর/এএইচ