দরিদ্র আরাফাতের পাশে প্রবাস ফেরত কল্যাণ পরিষদ

টাকার অভাবে চিকিৎসা করাতে না পারা দরিদ্র শিশু আরাফাত হোসেন (৯) এর চিকিৎসার জন্য নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রবাসী ও প্রবাস ফেরত কল্যাণ পরিষদ সোনারগাঁ শাখার উদ্যেগে নগদ অর্থ সাহায্য প্রদান করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১৩ফেব্রুয়ারি) সংগঠনের সদস্যরা আরাফাতের বাড়িতে গিয়ে নগদ অর্থ তার বাবার হাতে তুলে দেয়।

সোনারগাঁ পৌরসভার রাইজদিয়া এলাকার সুমন মিয়ার ছেলে আরাফাত। সুমন মিয়া পেশায় ভ্যান চালক। সুমন মিয়া জানান, আমার একমাত্র ছেলে আরাফাত হোসেনের ৯ জানুয়ারী ঘুড়ি উড়াতে গিয়ে রক সুতায় দিয়ে বাম হাতের শাহাদাত আঙ্গুল কেটে যায়। পরে উপজেলা হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা করানো হলেও সংক্রমন বৃদ্ধি পেতে থাকে। পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা ছেলের বাম হাতের শাহাদাত আঙ্গুল কেটে ফেলে দেয় এবং মধ্যমা আঙ্গুলে সংক্রমন ধরলে তাও কেটে ফেলতে হবে জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, চিকিৎসা করাতে এখন পর্যন্ত ৭২ হাজার টাকা খরচ হয়েছে। কিন্তু টাকার অভাবে আর চিকিৎসা করাতে পারছিলাম না। প্রবাসী ও প্রবাস ফেরত কল্যাণ পরিষদ আরাফাতের চিকিৎসার জন্য কিছু অনুদান দিয়েছে যা দিয়ে তার চিকিৎসা শুরু করতে পারব। অনুদানের জন্য তাদের ধন্যবাদ জানান সুমন মিয়া।

প্রবাসী ও প্রবাস ফেরত কল্যাণ পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির প্রচার সম্পাদক বিল্লাল হোসেন জানান, অসহায় দরিদ্র মানুষের জন্য আমরা কাজ করে যাচ্ছি। বিশেষ করে যারা প্রবাস ফেরত দরিদ্র ও দূর্ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তাদের জন্য আর্থিক সহায়তা থেকে শুরু করে নানা ধরনের সুযোগ সুবিধা দিয়ে যাচ্ছি।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রবাসী ও প্রবাস ফেরত কল্যাণ পরিষদ এর সোনারগাঁ শাখার প্রচার সম্পাদক কবির হোসেন, সোনারগাঁ বার্তা২৪ ডটকমের সম্পাদক শেখ ফরিদ, দৈনিক খোলা কাগজ সোনারগাঁ প্রতিনিধি এম কামরুল ইসলাম, সোনারগাঁও ব্রাইট কম্পিউটার সেন্টারের মালিক ও বিশিষ্ট সমাজ সেবক উজ্জল হোসেন মাসুম, সোনারগাঁ কিংস ক্লাবের খেলোয়ার জিতু মিয়া ও শাহাদাত হোসেন প্রমুখ।

সারাদিন/১৩ফেব্রুয়ারি/এএইচ