জীবনের চেয়ে মালিকদের কাছে গাড়ির মূল্য বেশি

নিজস্ব প্রতিবেদকনিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ৭:৩২ অপরাহ্ণ, ০৫/০২/২০২০

নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলনের চেয়ারম্যান ইলিয়াস কাঞ্চন বলেছেন, সড়ক দুর্ঘটনায় আহতদের জরুরি চিকিৎসাসেবা নিশ্চিতে সড়কে চলাচল রত অন্য গাড়ির মালিকদের এগিয়ে আসতে হবে। অনেক সময় সড়ক দুর্ঘটনায় আহত ব্যক্তি দীর্ঘ সময় সড়কেই পড়ে থাকেন। আহত ব্যক্তির রক্ত গাড়িতে লেগে যাবে বলে সড়কে চলাচলরত অন্য গাড়ির মালিকরা তাদের নিজেদের গাড়িতে তুলে নিতে চান না। তাদের কাছে দুর্ঘটনায় আহত ব্যক্তির জীবনের চেয়ে গাড়ির মূল্য অনেক বেশি।

বুধবার (৫ ফেব্রুয়ারি) জাতীয় প্রেস ক্লাবের আবদুস সালাম হলে ট্রমালিংক আয়োজিত ‘সড়ক দুর্ঘটনায় আহত ব্যক্তিদের তাৎক্ষণিক সেবা প্রদানধর্মী স্বেচ্ছাসেবীমূলক কার্যক্রমের পাঁচ বছর’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

ইলিয়াস কাঞ্চন বলেন, সড়ক দুর্ঘটনায় আহত মানুষগুলোকে চিকিৎসা দিয়ে আমরা বাঁচাতে পারতাম। তবে দুঃখজনক ও মর্মান্তিক বিষয় হলো, তাদের সময়মতো সঠিক চিকিৎসা দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না। এ কারণে মানুষগুলোর মৃত্যু হচ্ছে।

ইলিয়াস কাঞ্চন নিজের স্ত্রীর দুর্ঘটনার কথা উল্লেখ করে বলেন, আমার স্ত্রী যখন সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হন, তখন একই অবস্থা হয়েছিল। তাকে দ্রুততম সময়ে চিকিৎসা দেওয়া সম্ভব হয়নি। সেই রাজবাড়ীতে, সেখানে গাড়ি থামানোর চেষ্টা করা হয়েছিল। সেসময় এটিএম শামসুজ্জামান তার সঙ্গে ছিলেন।

তিনি বলেন, আমার স্ত্রীকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার জন্য গাড়ি থামানোর চেষ্টা করছিলেন তিনি। তবে তিনিও কোনও গাড়ি থামাতে পারেননি। দুর্ঘটনা ঘটলে মানুষ রক্তাক্ত হয়। তবে মানুষের জীবনের থেকে গাড়িওয়ালাদের কাছে গাড়িতে রক্ত লেগে যাবে বিষয়টি অনেক বড়। সড়ক দুর্ঘটনায় মিশুক-মুনীরদেরও চিকিৎসা দেওয়া যায়নি বলে অভিযোগ করেন তিনি।

আলোচনা সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, ডিএমপির দক্ষিণ ট্রাফিক জয়েন্ট কমিশনার বাসুদেব বণিক, বিআরটিএর পরিচালক মো. সিরাজুল ইসলাম, ট্রমালিংকের চেয়ারপারসন মোহাম্মদ নূর চৌধুরী প্রমুখ।

সারাদিন/৫ফেব্রুয়ারি/টিআর