কিডনি রোগে আক্রান্ত সরওয়ার বাঁচতে চায়

‘মানুষ মানুষের জন্য, জীবন জীবনের জন্য, একটু সহানুভুতি কি মানুষ পেতে পারে না’। এমনিই এক আকুতি জানালেন বান্দরবানের লামা উপজেলার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের দক্ষিণ হায়দারনাশী গ্রামের বাসিন্দা আলী হোসেনের ছেলে মো. আবু সরওয়ার (২৭)।

সহায় সম্বলহীন আবু সরওয়ার ১০ বছর ধরে দুরারোগ্য ‘কিডনি’ রোগে ভুগছেন। চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ‘নেফ্রোলজি’ বিভাগে চিকিৎসা গ্রহণ করছেন আবু সরওয়ার। যতদিন বেঁচে থাকবেন, ততদিন তাকে ডায়ালাইসিস করার পরামর্শ দেন চিকিৎসক। সে মতে প্রতি সপ্তাহে তার চিকিৎসা ও ঔষধ খরচ বাবদ ৪ হাজার টাকার
প্রয়োজন হয়।

কিন্তু এত টাকা দিনমজুর আবু সরওয়ারের পক্ষে যোগাড় করা সম্ভব হচ্ছেনা। তাই ঠিকমত ঔষধ ও চিকিৎসা নিতে না পারায় দিন দিন তার অবস্থার অবনতির দিকে যাচ্ছে। দূরারোগ্যে আক্রান্ত হওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করে ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. জাকের হোসেন মজুমদার বলেন, সকলের অল্প অল্প আর্থিক সহযোগিতায় বেঁচে যেতে পারে অসহায় আবু সরওয়ার।

আবু সরওয়ারের বাবা আলী হোসেন জানান, মা, বাবা, স্ত্রী ও ১ সন্তান নিয়ে গঠিত সংসারের একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তি ছিলেন আবু সরওয়ার। গত ১০ বছর যাবত সহায় সম্পদ বিক্রয় এবং ঋণ গ্রহণ করে এতদিন চিকিৎসা ব্যয় বহন করেছেন। বর্তমানে তাদের পক্ষে বিপুল অর্থ ব্যয়ে ডায়ালাইসিস করা ও ঔষধ ক্রয় অসম্ভব হয়ে পড়েছে।

তিনি আরও জানান, কিডনি প্রতিস্থাপন করলে প্রয়োজন প্রায় ২০ লাখ টাকা। তাই মানবিক কারণে সরওয়ারের চিকিৎসা ব্যয়ে আর্থিক সহায়তা চেয়ে সমাজের সকল হৃদয়বান, বিত্তশালী, দানশীল ও সেবাধর্মী প্রতিষ্ঠানের নিকট সাহায্যের আবেদন করেন স্বজনেরা। সাহায্য পাঠানোর বিকাশ ও যোগাযোগের মোবাইল নং-০১৮৩১-৬৮৭০২৬।

সারাদিন/৪ফেব্রুয়ারি/টিআর/এএইচ